bd24report.com | পরকীয়া সম্পর্কের কারনে স্ত্রীকে বেঁধে পেটালেন স্বামী

পরকীয়া সম্পর্কের কারনে স্ত্রীকে বেঁধে পেটালেন স্বামী

আপডেট: March 26, 2018

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
পরকীয়া সম্পর্কের কারনে স্ত্রীকে বেঁধে পেটালেন স্বামী

অবৈধ সম্পর্কের অভিযোগে গাছের সঙ্গে বেঁধে এক নারীকে পিটিয়েছেন তার স্বামী। এসময় পুরো গ্রামবাসী এ দৃশ্য দেখছিল। ভারতের উত্তর প্রদেশের বুলান্দর শহরে পঞ্চায়েত অবৈধ সম্পর্কের ঘটনায় এক নারীকে ১০০ ঘা মারার আদেশ দেন। এরপর ওই নারীকে একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে তারই স্বামী বেল্ট দিয়ে তাকে মারতে থাকে। খবর এক্সপ্রেসের।

ওই ঘটনার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। ওঠে সমালোচনার ঝড়ও।
ভিডিওতে দেখা যায়, গ্রামবাসী একটি গাছের চারপাশে জড়ো হয়েছে। আর ওই গাছের সঙ্গে দড়ি দিয়ে দুহাত বাঁধা এক নারীকে তার স্বামী বেল্ট দিয়ে পেটাচ্ছেন। গোলাপি ও সাদা রঙের শাড়ি পড়া ওই নারী মার খেয়ে ব্যথায় কান্না করতে শোনা যায়।

ওই নারী অভিযোগ করেন, তিনি ক্লান্ত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ার পর গ্রামের পুরুষরা তাকে যৌন হেনস্তা ও ধর্ষণ করার চেষ্টা করে। পরে তার জ্ঞান ফিরলে তিনি যেন এ ঘটনা পুলিশকে না জানান, সে ব্যাপারে সতর্ক করে দেয়া হয়।

বুলান্দর শহর পুলিশের একজন মুখপাত্র বলেছেন, চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে ওই নারী তার প্রেমিককে নিয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। তারা তাদের এক আত্মীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। কিন্তু ১০ মার্চ তার স্বামী এই বলে ফিরিয়ে আনেন যে, তাকে ক্ষমা করে দিয়েছেন তিনি। কিন্তু সে ফিরে আসার পর গ্রামের বয়োজ্যেষ্ঠের সালিশি বৈঠকে ওই নারীকে সাজা দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। তারা জানায়, ওই নারীকে ১০০ ঘা মারতে হবে। পরে ওই নারী একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এ ঘটনায় পুলিশ গ্রামের কমপক্ষে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

বুলান্দর শহর পুলিশ পরিদর্শক আলতাফ আনসারি বলেছেন, আমরা ওই নারীর স্বামী সৌদান, সাবেক গ্রাম্য প্রধান শের সিং ও তার ছেলে শ্রাবণ সিংয়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছি। অভিযুক্তদের ধরতে অভিযান চলছে। আর মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ওই নারীকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন