bd24report.com | ঝিকরগাছায় কবুতার পালন করে স্বাবলম্বী হওয়ার পথ খুজছেন আজিজ

ঝিকরগাছায় কবুতার পালন করে স্বাবলম্বী হওয়ার পথ খুজছেন আজিজ

আপডেট: April 20, 2018

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
ঝিকরগাছায় কবুতার পালন করে স্বাবলম্বী হওয়ার পথ খুজছেন  আজিজ

জয়নাল আবেদীন,বেনাপোল প্রতিনিধি: যশোরের ঝিকরগাছায় গ্রাম ভিত্তিক কবুতার পালন করে স্বাবলম্বী হওয়ার পথ খুজছেন আব্দুল আজিজ। যে কবুতর এক সময় বাকুম বাকুম শব্দে গ্রামগন্জে মুখরিত করে রাখতো প্রতিটি বাড়ীতে।এমনকি কবুতারের বাকুম বাকুম শব্দে ঘুম ভাঙতে অনেকেরই। সেই কবুতার প্রাথমিক ভাবে আব্দুল আজিজ এক জোড়া নিয়ে পালন শুরু করে। আব্দুল আজিজ উপজেলার শংকরপুর কুলবাড়ীয়া গ্রামের ওহেদ আলীর ছেলে।

তিনি জানান, ব্যবসায়ীক কাজে একদিন সাতক্ষীরায় বেড়াতে গিয়েছিলেন।সেখানে যেয়ে কবুতার পালন দেখে আকৃষ্ট হয়এবং তার শখ হয় কবুতার পালনে। শখ পুরন করতে প্রাথমিক ভাবে তিনি ৪শ টাকায় একজোড়া কবুতার কিনে শুরু করেন। একটি ঘরের ভিতর খোপ খোপ করে লোহা ও বাঁশের খাচায় কবুতার থাকার ঘর তৈরী করেন আব্দুল আজিজ। নিজের কাজের ফাঁকে সময়মত কবুতার পরিচর্যার কোন ত্রুটি রাখেন না তিনি। যার ফলে দিন দিন বাড়তে থাকে কবুতারের সংখ্যা। বর্তমানে ২৭ প্রজাতির কবুতার রয়েছে তার খামারে। সব কয়টি উন্নত জাতের বলে জানান আব্দুল আজিজ। যার মুল্যো প্রায় ২ লক্ষ টাকা।

তিনি জানান, দেশী প্রজাতির কবুতার দিয়ে শুরু করলেও বর্তমানে খামারে যেসব কবুতার রয়েছে সবগুলোই উন্নত জাতের। রিং,পারভীন, আয়ুল,আইচ মুখতি,সুয়া চন্দন,জগবিন, লক্ষ, মগপাই, সিরাজি,কালো মুক্ষি,উজবেগ, বৌম্বায় ছিস্টি,লটন,ঘিয়েচিল্লি,হাউজ ফিজান,মনডেয়া,রেন্ড,ইনফাইফ,ইন্ডিয়ান লটন, কুকারা,বল, নামে ২৭ প্রজাতির কবুতার রয়েছে এ খামারে। ৬শ টাকার থেকে শুরু করে ২৫ হাজার টাকার কবুতার রয়েছে বলে তিনি জানান। প্রতি মাসে প্রকৃতির উপায়ে খাচাতেই ডিম দিয়ে বাচ্চা দিয়ে আসছে এসব কবুতার। নিজের বাড়ীর একটি ঘরে শখে কবুতার পালন করে স্বাবলম্বী হওয়ার পথ খুঁজছেন আব্দুল আজিজ।পাশাপাশি তার কবুতার পালন দেখে অনেকে উদ্বৃদ্ধ হচ্ছেন কবুতার পালনে। শখের বশে কবুতার পালন শুরু হলেও প্রানী সম্পদ বিভাগের সহযোগিতা পেলে অল্প খরচে অধিক মুনাফা পেতে কবুতার পালন আয়ের উৎস হবে বলে আব্দুল আজিজ জানান।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন