শুধু পছন্দ করুন হোয়াটস অ্যাপে! পৌঁছে যাবে বাসায়….!

পর্যটক ঠাসা সিমলার তিনটি হোটেল অভিযান চালিয়ে মধুচক্রের অভিযোগে সাত মহিলা সহ হোটেল মালিককে গ্রেফতার করল হিমাচল প্রদেশ পুলিশ৷ সকালে মধুচক্রের আসরে অভিযান চালায় পুলিশ৷

কীভাবে চলে মধুচক্রের কারবার? পুলিশ সূত্রে খবর, এই মুহূর্তে সিকিম শহরে আনাছে-কানাচে রমরমিয়ে চলছে মধুচক্র। সক্রিয় রয়েছে পুলিশও। সম্প্রতি বেশ কয়েকটি অভিযান চালিয়ে একটি মধুচক্রের আসর ভেঙেছে পুলিশ৷ কিন্তু, পুলিশি নজর এড়িয়ে চলছে কারবার৷

জানা গিয়েছে, পর্যটকেরা হোটেল সঙ্গী জোগাড় করে দেওয়ার কথা বললে ফোন মারফৎ যোগাযোগ করিয়ে দেওয়া হয় দেহ ব্যবসায়ী চক্রের পাণ্ডাদের সঙ্গে। তারাই হোয়াটঅ্যাপসের মাধ্যমে সুন্দরী মহিলাদের ছবি পাঠিয়ে দেয়। সেইসঙ্গে কোন মহিলার জন্যে কত টাকা খরচ পড়বে তা বাতলে দেওয়া হয়। তবে তারসঙ্গে যুক্ত হয় হোটেলের কমিশন। যে মহিলাকে পছন্দ হবে হোটেল এবং রুম নম্বর বলে দিলেই পৌঁছে যাবেন সেই মহিলা।

পর্যটন কেন্দ্রে পুলিশি অভিযানের ভয়ে দেহ ব্যবসায়ীদের রাখা হয় না। তাদের এজেন্টরা টোপ রাখে পর্যটকদের সামনে। তারপর অর্ডার মত সানি, ক্যাটরিনারা পৌঁছে যায় নির্দিষ্ট গন্তব্যে। তবে সবার দর এক নয়। সিজন অনুযায়ী ওঠানামা করে। পার্টি বা ক্লায়েন্ট অনুযায়ীও বটে। আবার সব সময় যে রাত ফুরোলেই বাত ফুরোয় এমনটা নয়। সূত্রঃ kolkata24x7