২০, নভেম্বর, ২০১৭, সোমবার | | ১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

আমলা- পেরেরায় সিরিজে সমতা বিশ্ব একাদশের

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১:৩২

থিসারা পেরেরার টর্নেডো ব্যাটিং, হাশিম আমলার দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে উত্তেজনাপূর্ন দ্বিতীয় ম্যাচে ৭ উইকেটের জয়ে সিরিজে ১-১ এ সমতা নিয়ে আসল বিশ্ব একাদশ।  পাকিস্তানের দেওয়া ১৭৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১ বল বাকি থাকতেই ৭ উইকেটের জয় পায় বিশ্ব একাদশ। 

পাকিস্তানের দেওয়া ১৭৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দারুন শুরু করে বিশ্ব একাদশের দুই ওপেনার তামিম ও আমলা।  দলীয় ৪৭ রানে ব্যক্তিগত ২৩ রান করে তামিম বিদায় নিলে ভাঙ্গে এই জুটি। 
এরপর আমলার সাথে জুটি গড়েন টিম পেইন।  বেশিক্ষন টিকতে পারেননি তিনিও।  মাত্র ১০ রান করেই সাজঘরে ফিরেন তিনি।  চার নম্বরে নেমে ব্যাট হাতে ঝড় তোলার ইঙ্গিত দিলেও ১৪ বলে ২০ রান করেই থামে ফাফ ডু প্লেসিসের ইনিংস।  অন্য প্রান্তে হাশিম আমলা তখনো অবিচল।  দেখছেন সহযাত্রীদের আসা যাওয়া। 

প্লেসিসের আউট যেন সাপে ভর হয় বিশ্ব একাদশের জন্য।  পেরেরা নামার পরই দৃশ্যপট বদলে যায় ম্যাচের।  পাকিস্তানি বোলারদের তুলোধোনা করে একের পর এক বাউন্ডারিতে পাঠাতে থাকেন।  তার টর্নেডো ইনিংসের কাছে অসহায় হয়ে পরে পাকিস্তানি বোলরার।  উত্তেজনাপূর্ন ম্যাচের শেষ মুহুর্ত পূর্যন্ত লড়াই করেও তাই পেরেরার কাছেই হারতে হল পাকিস্তানকে।  মাত্র ১৯ বলে ৪৭ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেন পেরেরা।  তার ইনিংসে নেই কোন চার।  আছে ৫ টি বিশাল ছক্কার মার।  আমলা অপরাজিত থাকেন ৭২ রানে। 


এর আগে দ্বিতীয় ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ।   ব্যাট করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা করে পাকিস্তান।   ফখর জামান ও আহমেদ শেহজাদ মিলে মাত্র ৪.৫ ওভারেই সংগ্রহ করে ৪১ রান।   এরপর তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমে আবারো  ঝড়
তোলেন প্রথম ম্যাচে জযের নায়ক বাবর আজম।   বাবর শেহজাদ জুটি স্থায়ী ছিল ৭.৩ ওভার।   এসময়ে তারা রান তুলে ৫৯।   ঠিক ১০০ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ৪৩ রান করে বিদায় নেন শেহজাদ। 

এরপর ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই রান তোলায় মনযোগী ছিলন সোয়েব মালিক।   মালিক-বাবর জুটিতে আরো ৩৫ রান।   দলীয় ১৩৫ রানে ব্যক্তিগত ৪৫ রান করে বিদায় নেন বাবর আজম।   বাবরের বিদায়ের পর ঝড় তোলেন মালিক।   ২৩ বলে ১ টি চার এবং ৩ টি ছয়ের সাহায্যে করেন ৩৯ রান।   সাথে আর কোন ব্যাটসম্যান জ্বলে উঠতে না পারলে ৬ উইকেটে ১৭৪ রানেই থামে পাকিস্তানের ইনিংস।