২৬, সেপ্টেম্বর, ২০১৭, মঙ্গলবার | | ৫ মুহররম ১৪৩৯

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে বোনের সাথে প্রেম করায় বন্ধুকে খুন

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১২:০৯

খালেদ মিয়া,(মৌলভীবাজার) :: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে বোনের সাথে প্রেম করায় বন্ধুকে খুন করেছে এক যুবক।  প্রেম সংক্রান্ত জের ধরে উপজেলার মাধবপুর চা বাগান এলাকার ৩নং লাইনের শ্রমিক বলরাম নুনিয়ার (৫৮) ছেলে পান ব্যবসায়ী সুমন নুনিয়া (২৪) ঘটনার দিন সে তার ছোট বোন মুন্নি নুনিয়ার বাড়ি মির্তিংগা চা বাগানের উদ্যেশে গত শুক্রবার (৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় মাধবপুর চা বাগান  থেকে বের হওয়ার পর থেকে  নিখোঁজ হয়,গত সোমবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৫ টায় স্হানীয়রা মিরতিংগা চা  বাগানের
গুটিবাড়ী নামক নির্জন এলাকায় নালার মধ্যে মস্তকবিহিন একটি লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেয়,পরে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে।  মিরতিংগা চা বাগান থেকে একটি লাশ উদ্ধারের খবর শুনে মঙ্গলবার সকালে মাধবপুর চা বাগানের নিখোঁজের পরিবার থানায় গিয়ে মস্তক বিহীন লাশটির শরীরের কিছু চিহ্ন দেখে, লাশটি নিখোঁজ সুমন নুনিয়ার বলে দাবী করেন।   এ তথ্যের সূত্র ধরে কমলগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক ওসি বদরুল হাসানের নেতৃত্বে এসআই ফরিদ মিয়া সহ পুলিশের একটি দল হত্যাকান্ডে জড়িত সন্দেহে হত্যাকারী মিরতিংগা চা বাগানের চা শ্রমিক বদরী তন্তবাই (৫০) ও তার ছেলে  কান্ত তন্তবাই পুতুল (২৪) কে তাদের বাড়ী থেকে আটক করে। 

 

আটককৃতদের স্বীকারোক্তিতে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ব্যবসায়ী সুমন নুনিয়ার কাটা মস্তক উদ্ধার করা হয় লাশ উদ্ধারের ৫ কি:মি: দূরে ধানি জমির কাঁদার নিচ থেকে।  মঙ্গলবার এসআই ফরিদ উদ্দীনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল হত্যাকারী মিরতিংগা চা বাগানের চা শ্রমিক বদরী তন্ত বাই (৫০) ও তার ছেলে কান্ত তন্ত বাই (২৪) কে নিয়ে এ চা বাগানের ৪নং প্লান্টেশন এলাকার একটি ধানি জমির কাঁদার নিচ থেকে সন্ধ্যা ৬টায় কাটা মস্তক উদ্ধার করেন।  সাথে সাথে হত্যায় ব্যবহৃত দাও উদ্ধার করা হয়। 

 

কমলগঞ্জ থানার ওসি বদরুল হাসান  লাশের পরিচয় বের হওয়া আর হত্যার সাথে জড়িত বাবা ছেলেকে আটক ও তাদের স্বীকারোক্তির সত্যতা নিশ্চিত করেন।  তিনি আরও বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে নারী ঘটিত ঘটনায় এই হত্যাকান্ড ঘটেছে।