২৬, সেপ্টেম্বর, ২০১৭, মঙ্গলবার | | ৫ মুহররম ১৪৩৯

আট মাস সংসারের পর অভাবের তাড়নায় ফিরে যাচ্ছেন মার্কিন তরুণী

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ০১:০৪

নিউজ ডেস্ক- সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দুজনের পরিচয় থেকে প্রেম।  আর সেই প্রেমের টানে বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জে ছুটে আসেন মার্কিন তরুণী। 

যদিও মার্কিন তরুণী মেনডি কুসারের (৩৯) আগে বিয়ে হয়েছে।  ওই সংসারে দুই সন্তানও ছিল তার।  কিন্তু সেই সন্তানদের সঙ্গে মায়ার বন্ধন মাড়িয়ে প্রেমের টানে দেশ ছেড়ে চলে আসেন বাংলাদেশে। 

বাংলাদেশে এসে নারায়ণগঞ্জের তরুণ ফারহান আরমানকে (৩০) বিয়েও করেন তিনি।  ভালোবাসার মানুষটিকে বিয়ে করে ৭-৮ মাস ধরে সংসার করলেও
অভাব-অনটনের কারণে সৃষ্ট পারিবারিক কলহের জেরে স্বামীর ঘর ছেড়ে দেশের মাটিতে চলে যেতে বাধ্য হচ্ছেন তিনি। 

মঙ্গলবার রাতে এসএমএসের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের হাইকমিশনারের কাছে সহযোগিতা চান মেনডি কুসার। 

পরে যুক্তরাষ্ট্রের হাইকমিশনার জেলা পুলিশকে বিষয়টি অবগত করলে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ মাসদাইর এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের কাছে হস্তান্তর করে। 

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি কামালউদ্দিন বুধবার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। 

তিনি জানান, যুক্তরাষ্ট্রের ১০৮, উইলিয়াম স্টেটের বাসিন্দা স্টেনলে কুসারের মেয়ে মেনডি কুসারের সঙ্গে ৩ বছর আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার মাসদাইর এলাকার জালাল উদ্দিনের ছেলে ফারহান আরমানের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। 

পরে ভালোবাসার টানে মেনডি কুসার যুক্তরাষ্ট্রে তার আগের সংসারের দুই সন্তান রেখে ৮ মাস আগে ফতুল্লার মাসদাইর এলাকায় চলে আসেন। 

পরে তারা ইসলামি শরিয়ত মোতাবেক বিয়ে করে মাসদাইর পতেঙ্গার মোড় ভাড়া বাসায় বসবাস করতে থাকেন। 

ফারহান আরমান ফতুল্লার মাসদাইর পতেঙ্গার মোড় এলাকার জলিল উদ্দিনের ছেলে।  তারা প্রায় ৮ মাস সংসার করে হঠাৎ করে অভাব-অনটনের কারণে তাদের পারিবারিক কলহ সৃষ্টি হয়। 

তবে ফারহান আরমানকে ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে যেতে ইচ্ছা পোষণ করলেও তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে অপারগতা প্রকাশ করেছেন। 

মেনডি কুসারকে মঙ্গলবার রাতেই যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।