২২, নভেম্বর, ২০১৭, বুধবার | | ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

খালেদার যাত্রা নিয়ে ফেনীতে তুলকালাম কাণ্ড

২৮ অক্টোবর ২০১৭, ০৯:০৭

মিয়ানমারের রাখাইনে দেশটির সেনাবাহিনী ও বৌদ্ধ মিলিশিয়াদের গণহত্যার মুখে নতুন করে বাংলাদেশের কক্সবাজারে আশ্রয় নিয়েছে ছয় লক্ষাধিক রোহিঙ্গা।  নিপীড়িত এসব রোহিঙ্গাদের দেখতে কক্সবাজার রওনা দিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।  শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে গুলশানের বাসা থেকে রওনা হন বিএনপি চেয়ারপারসন।  ফেনী সার্কিট হাউজে যাত্রাবিরতি দিয়ে চট্টগ্রামে তার রাত্রিযাপনের কথা রয়েছে। 
 
তবে খালেদা জিয়ার এই সফর ঘিরে ফেনীতে রীতিমতো তুলকালাম কাণ্ড
বাঁধিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।  গাছের গুঁড়ি ফেলে শহরের সংযোগ সড়ক অবরোধ এবং গাড়িবহরে হামলা চালিয়েছে তারা।  ফেনী জেলা শহরে ছিল কার্যত ‘অঘোষিত হরতাল’। 

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মোহাম্মদ আলী থেকে ফেনী বিসিক এলাকা পর্যন্ত খালেদা জিয়াকে অভ্যর্থনা জানিয়ে লাগানো ব্যানার-ফেস্টুন শনিবার দুপুরে একদল দুর্বৃত্ত ছিড়ে সড়কের পাশে ফেলে দেয়। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুর্বৃত্তরা দল বেঁধে লাঠি ও বড় বড় কিরিচ নিয়ে সড়কের পাশ গাছে লাগানো ফেস্টুনগুলো ছিড়ে সড়কের পাশে ফেলে দেয়।  স্থানীয় হতদরিদ্র এক নারীকে এসব ব্যানার-ফেস্টুন কুড়িয়ে নিতে দেখা গেছে।  খালেদা জিয়াকে অভ্যর্থনা জানাতে ফেনী জেলা বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের থানা, পৌর ও ইউনিয়ন নেতাকর্মীদের জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আসতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

ফেনী-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কে ব্যারিকেড দেওয়ার খবর পাওয়া গেছে।  এতে ওই সড়কে কয়েক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়।  এদিকে, বিকাল পৌনে ৫টার দিকে বিএনপি চেয়ারপারসনের গাড়িসহ বহরের একাংশ ফেনীর মোহাম্মদ আলী বাজার অতিক্রমের পরপরই ১৫-২০ যুবক লাঠিসোঁটা নিয়ে সড়কে উঠে আসে।  তাদের কয়েকজনের হাতে আগ্নেয়াস্ত্রও ছিল। 

এসময় তারা হামলা চালিয়ে একাত্তর, ডিবিসি, চ্যানেল আই ও বৈশাখী টেলিভিশনের গাড়ি ভাঙচুর করে।  হামলায় বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাদের তিনটি গাড়িও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। 

হামলায় একাত্তর টিভির শফিক আহমেদ, বৈশাখী টিভির গোলাম মোর্শেদ এবং ডিবিসি’র ক্যামেরাপারসনসহ কমপক্ষে পাঁচজন আহত হন। 
ফেনী জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নঈম উল্যাহ চৌধুরী বলেন, বিএনপি নেতাকর্মীদের বাধা দিতে সরকারি দল অঘোষিত হরতাল দিয়ে যাত্রীবাহী পরিবহন বন্ধ করে দেয়, পথে পথে ব্যারিকেড দেয়। 

জানতে চাইলে ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুর রহমান বি.কম বলেন, ব্যানার-ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলার বিষয়টি তিনি অবগত নন।  তবে বিএনপি-জামায়াত জোটের নাশকতা ঠেকাতে শহরে নেতাকর্মীরা মিছিল করেছেন।