২৪, নভেম্বর, ২০১৭, শুক্রবার | | ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

প্রধানমন্ত্রীকে হত্যা চেষ্টা: ১১ জনকে ২০ বছরের কারাদন্ড

২৯ অক্টোবর ২০১৭, ০১:৩২

প্রধানমন্ত্রী শেষ হাসিনাকে হত্যা চেষ্টার মামলায় ১১ জনকে ২০ বছরের কারাদন্ড দিয়েছে আদালত।  একই সাথে জনপ্রতি ৪০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরো ১ বছরের কারাদন্ড দিয়েছে আদালত।  মামলার অপর আসামী খালাস পেয়েছে।  ১৯৮৯ সালের ১০ আগষ্ট ধানমন্ডির ৩২ নম্বর বাসায় প্রধামন্ত্রীকে হত্যার জন্য হামলা চালিয়েছিল আসামীরা। 

দণ্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছেন- লেফটেন্যান্ট কর্নেল (অব.) খন্দকার আবদুর রশীদ, মো. মিজানুর রহমান, মো. শাজাহান বালু, গাজী ঈমাম হোসেন, জর্জ মিয়া, গোলাম সারোয়ার
মামুন, মো. সোহেল ওরফে ফ্রিডম সোহেল, গোলাম সারোয়ার মামুন, সৈয়দ নাজমুল মাকসুদ মুরাদ, মো. হুমায়ুন কবির হুমায়ুন ও খন্দকার আমিরুল ইসলাম কাজল। 

অপর আসামি হুমাউন কবির ওরফে কবির খালাস পেয়েছেন। 

দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে গোলাম সারোয়ার মামুন, জর্জ মিয়া, মো. সোহেল ওরফে ফ্রিডম সোহেল ও সৈয়দ নাজমুল মাকসুদ মুরাদ গ্রেফতার হয়ে কারাগারে ছিলেন।  তাদেরকে রায় শোনাতে আদালতে হাজির করা হয়। 

জামিনে থাকা চার আসামি গাজী ঈমাম হোসেন, খন্দকার আমিরুল ইসলাম কাজল, মো. মিজানুর রহমান ও মো. শাজাহান বালুও আদালতে হাজির ছিলেন।   

দণ্ডপ্রাপ্ত এ আটজনকে সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। 

অন্য তিনজন লেফটেন্যান্ট কর্নেল (অব.) খন্দকার আবদুর রশীদ, জাফর আহম্মদ মানিক ও মো. হুমায়ুন কবির হুমায়ুন পলাতক। 

খালাস পাওয়া হুমাউন কবির ওরফে কবির জামিনে ছিলেন।