২২, নভেম্বর, ২০১৭, বুধবার | | ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

বিয়ে না করার ১৩টি কারন

০৮ নভেম্বর ২০১৭, ০৪:৩২

বিয়ের সিজন ঘাড়ের উপর নিঃশ্বাস ফেলছে।  সঙ্গে বাড়ছে আপনার আতঙ্ক।  আত্মীয়দের সঙ্গে কোনও অনুষ্ঠানে দেখে হলে, তাঁদের একই প্রশ্ন— কিরে, বিয়েটা কবে করছিস?

বাড়িতেও বেশ চাপ! যত ‘তুতো’ ভাই-বোনদের পটাপট বিয়ে হয়ে যাচ্ছে, বাকি শুধু আপনিই।  স্বাভাবিকভাবেই, মা-বাবা নিজেদের ব্লাড প্রেসার বাড়িয়ে ফেলছেন চিন্তায় চিন্তায়।  তা হলে আর কি! ইচ্ছে না থাকলেও, ‘হ্যাঁ’ বলে সবাইকে খুশি করে দিন।  তার পরে যা হবে, সে না হয় দেখা যাবে। 

অনেকের জীবনেই এমনটা হয়ে
থাকে।  আপনি হয় তো মানসিক ভাবে বিয়ের জন্য প্রস্তুত নন, তবুও পারিপার্শ্বিক কারণেই জড়িয়ে পড়তে হয় বিবাহবন্ধনে।  ফল ভাল হলে তো খুবই আনন্দের ব্যাপার।  কিন্তু, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তা হয় না। 

এমনই কয়েকটি বিয়ে ‘না’ করার কারণ দেওয়া হল এখানে—

এমনই কয়েকটি বিয়ে ‘না’ করার কারণ দেওয়া হল এখানে—

১।  বয়স বেড়ে যাচ্ছে— কিন্তু জীবন তো আর শেষ হয়ে যাচ্ছে না।  ‘লেট ম্যারেজ’ হলে ক্ষতি তো কিছু নেই। 

২।  একা হয়ে যাবেন জীবনে— এই কথা ভেবে বিয়ে করার কোনও যুক্তি নেই।  বিয়ে করেও অনেকে একা হয়ে যান, মানসিক ভাবে। 

৩।  প্রথম প্রেম ভেঙে গিয়েছে— তাই ও মুখো আর নয়।  সোজা বিয়ের পিঁড়েতে।  হয়তো ভুল করবেন। 

৪।  বন্ধুরা সকলেই বিয়ে করে ফেলছে— তাই আপনাকেও বিয়ে করতে হবে!

৫।  বিবাহিত বন্ধুদের সঙ্গে গল্প করার মতো আপনার কিছুই নেই— তাই আপনারও প্রয়োজন বিবাহিত জীবনের। 

৬।  ভাই-বোনদের বিয়ে হয়ে যাচ্ছে— এবার আপনার পালা। 

৭।  ডেটিং করে করে বোর হয়ে গিয়েছেন— তাই বিয়ে করতে হবে।  জীবনে আরও অনেক কিছুই করার রয়েছে। 

৮।  একজনের সঙ্গে অনেক দিন মেলামেশা করছেন— বিয়ে না করলে সকলে খারাপ বলতে পারে। 

৯।  আপনার ডেটিং পার্টনার ভাল ‘ম্যারেজ মেটিরিয়াল’— তাই তাকে বিয়ে করে ফেলতে হবে। 

১০।  একদিন না একদিন বিয়ে করতেই হবে— তাই করে ফেলাই ভাল। 

১১।  পরিচিত সবার পরিবারেই বাচ্চার হাসি শোনা যায়— নাতি-নাতনিকে দেখে যেতে চায় পরিবারের বর্ষীয়ানরা। 

১২।  নিজের সন্তান চান— তাই বিয়ে ছাড়া গতি নেই।  কিন্তু, এখন তো ‘সিঙ্গল পেরেন্ট’ হচ্ছেন অনেকেই। 

১৩।  সবাইকে খুশি করতে বিয়েটা করেই ফেলুন— আপনার বিয়েটা হয়ে গেলে মা-বাবা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলবেন যে।