১৪, ডিসেম্বর, ২০১৭, বৃহস্পতিবার | | ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

পড়ানোর নামে গৃহশিক্ষক প্রতিদিন জড়িয়ে ধরত, অতঃপর

০৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ১১:৩১

দশম শ্রেনীর ছাত্রী মীরা রায়।  মীরা কলকাতার পতিরামের ঝাপুর্সী এলাকায় বাসিন্দা।  পড়াশোনার চাপ থাকায় সুজন মণ্ডল নামে এক  গৃহশিক্ষক রেখে দেন  মীরার পরিবার। 
কিন্তু গত ২৫নভেম্বরে বিকেলে ঘরের ভেতর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় মীরার মৃতদেহ উদ্ধার হয়।  আত্মহত্যার কারণ নিয়ে পরিবারের সদস্যরা ধন্দে পড়ে যান৷ পরে মৃত ছাত্রীর নিজে হাতে লেখা বইয়ের ভেতর পাওয়া একটি ‘সুইসাইড’ নোট থেকে জানা যায় যে,‘শিক্ষকের যৌন নির্যাতনের কারণেই সে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে। ’

সুইসাইড
নোট থেকে আরো জানা যায় যে তাঁর গৃহশিক্ষক সুজন মণ্ডল দীর্ঘদিন থেকেই তাঁর উপর যৌন নির্যাতন চালিয়ে আসছেন।  চিরকুটে ছাত্রীটি লিখেছে যে, অভিযুক্ত শিক্ষক তাঁকে পড়ানোর নামে প্রতিদিন জড়িয়ে ধরে নানান কু-কর্ম করত। 

 এরপরই গা ঢাকা দেয় অভিযুক্ত গৃহশিক্ষক৷ বুধবার দুপুরে রাস্তা থেকে বাইক সহ তাকে পাকড়াও করে বালুরঘাট থানার পুলিশ।