১৭, জানুয়ারী, ২০১৮, বুধবার | | ২৯ রবিউস সানি ১৪৩৯

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা শুরু ১ জানুয়ারি

২৪ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৯:৪৯

মহাসমারোহে আবারো শুরু হতে যাচ্ছে বাণিজ্য মেলা।  ১ জানুয়ারি থেকে রাজধানীর শেরে বাংলানগরে শুরু হতে যাচ্ছে ২৩তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা।  মাসব্যাপী এই মেলার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) আয়োজনে এবারের মেলায় থাকছে ১৮টি দেশের ৫৪০টি স্টল।  বাংলাদেশ ছাড়াও মেলায় অংশ নিচ্ছে ১৭টি দেশ।  এগুলো হলোভারত, পাকিস্তান, চীন, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ কোরিয়া, মালয়েশিয়া, ইরান, থাইল্যান্ড, তুরস্ক, সিঙ্গাপুর,
ভুটান, মরিশাস, ভিয়েতনাম, মালদ্বীপ, নেপাল এবং হংকং।  প্রতি বছর মেলায় স্টল বরাদ্দের হার বেশি। 

মেলার সুন্দর্য বাড়াতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।  এবার মেলা প্রাঙ্গণে চলাচলের রাস্তা প্রশস্ত রেখে অর্কিড বাগান, মিনি সুন্দরবন তৈরি ও বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়নের জন্য বাড়তি জায়গা রাখার কারণে স্টল কমিয়ে দেয়া হয়েছে। 

জমে উঠেছে মেলার শেষ প্রস্তুতি।  মেলা প্রাঙ্গণে অংশগ্রহণকারী দেশি-বিদেশি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের স্টলও প্যাভিলিয়ন তৈরির কাজ চলছে।  বেশিরভাগ কাজই ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে।  প্রতিবারের মতো এবারের মেলায়ও থাকছে তৈরি পোশাক, হোমটেক্সটাইল, ফেব্রিক্স পণ্য, হস্তশিল্পজাত পণ্য, পাট ও পাটজাত পণ্য, গৃহস্থালি ও উপহার সামগ্রী, চামড়াজাত পণ্য, সিরামিকের তৈজসপত্র, প্লাস্টিক পণ্য, কসমেটিকস হারবাল ও প্রসাধনী সামগ্রী, খাদ্য ও খাদ্যজাত পণ্য, ইলেকট্রিক ওইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রী, জুয়েলারি, নির্মাণ সামগ্রী ও আসবাবপত্রের স্টল। 

বরাবরের ন্যায় নতুন বছরের আগমনী উপলক্ষ্যে এবারের মেলার আকর্ষণ থাকবে ডিজিটাল এক্সপেরিয়েন্স সেন্টার।  যার মাধ্যমে মেলায় অবস্থিত স্টল ও প্যাভিলিয়নের অবস্থান জানতে পারবে দর্শনার্থীরা।  এছাড়া গতবারের তুলনায় বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়নের আকার এবার দ্বিগুণ করা হয়েছে। 

দেশের বিখ্যাত চিত্রশিল্পীদের আঁকা বঙ্গবন্ধুর উপর ২৬টি চিত্রকর্ম থাকবে এই প্যাভিলিয়নে।  তাছাড়া এবার মেলায় বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ও পাখির পরিচিতির জন্য থাকবে পৃথক ফিশ অ্যাকুরিয়াম ও বার্ড অ্যাকুরিয়াম নিয়ে থাকবে একটি মিনি সুন্দরবন। গত বছরের মেলায় ৮০ কোটি টাকার রপ্তানি আদেশ পাওয়া গেছে।  তবে এবারের মেলায় আরওবেশি রপ্তানি আদেশ বাড়বে বলে আশা করছেন আয়োজকরা।