১৬, জানুয়ারী, ২০১৮, মঙ্গলবার | | ২৮ রবিউস সানি ১৪৩৯

২০১৮ সাল খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে গণতন্ত্রের বিজয় বছর: রিজভী

০৬ জানুয়ারী ২০১৮, ০৫:৩০

২০১৮ সালে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে গণতন্ত্রের বিজয় পতাকা উড়বে।  বল প্রয়োগ করে জনগণের অগ্রযাত্রায় আওয়ামী লীগ আর বাধা দিতে পারবে না।  খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে বাংলাদেশের মানুষের অধিকার ফিরে পাওয়ার বছর হবে ২০১৮।  এ বছটি বাংলাদেশের কলঙ্ক মোচনের বছর। 

আওয়ামী লীগ নেতারা মিথ্যাচারের ডাইনোসর।  তাই তারা প্রাণিজগৎ থেকে শিগগিরই বিলুপ্ত হয়ে যাবেন।  শনিবার বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এসব কথা
বলেন। 

রিজভী বলেন, যারা ইতিহাসের সত্যকে অস্বীকার করে তারা নিজেরাই নিজেদের ধ্বংসের বীজ রোপন করেন।  অতি ক্ষমতা, অতি দম্ভ, অতি দুর্নীতি, অতি নিপীড়ণ-নির্যাতন, অতি অস্ত্রের আস্ফালন এবং অতি মিথ্যাচারের কারণে আওয়ামী লীগের বিদায় এখন সময়ের দাবি। 

তিনি আরও বলেন, বিনা ভোটের এই সরকারের বিদায়ের দিন গণনা শুরু হয়ে গেছে।  ২০১৮ সাল হবে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে বাংলাদেশের মানুষের অধিকার ফিরে পাওয়ার বছর। 

এছাড়া রিজভী আওয়ামী লীগ নেতাদের উদ্দেশে বলেন, আপনারা হাতে মৃত্যুর দন্ডাজ্ঞা নিয়ে জনগণকে ভয় দেখিয়ে নিজেদের স্বার্থ সিদ্ধি করতে চান।  কিন্তু বারবার আপনাদের সেই সুযোগ আসবে না।  চারিদিক থেকে যে চ্যালেঞ্জে পড়েছেন তা মোকাবিলা করার ক্ষমতা আপনাদের নেই।  ২০১৮ সালে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে গণতন্ত্রের বিজয় পতাকা উড়বে।  বল প্রয়োগ করে জনগণের অগ্রযাত্রায় আওয়ামী লীগ আর বাধা দিতে পারবে না। 

বিএনপির এ নেতা বলেন, শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনের কথা বলা আপনাদের জন্য হবে অরণ্যে রোদন।  গণতন্ত্র হত্যাকারীদের অধীনে নির্বাচন হলে সেখানে মানুষের ভোটাধিকার কবরস্থানে চলে যাবে।  এটা দেশবাসী খুব ভালো জানে। 

শুক্রবার ‘গণতন্ত্র হত্যা’ দিবস পালনের সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও ছাত্রলীগ-যুবলীগের সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়।  আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও ক্ষমতাসীন দলের সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত হয়েছেন শতাধিক বিএনপি নেতা কর্মী।  পাশাপাশি পুলিশ অর্ধ শতাধিক নেতা কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে বলে অভিযোগ করা হয়।