১৭, জানুয়ারী, ২০১৮, বুধবার | | ২৯ রবিউস সানি ১৪৩৯

প্রশ্নফাঁস নিয়ে ছাত্রলীগ সভাপতির ভিডিও ভাইরাল

০৭ জানুয়ারী ২০১৮, ১২:৪৫

বাংলাদেশের কোথাও প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনাই ঘটে না, সেখানে কিভাবে ছাত্রলীগ জড়িত? ছাত্রলীগ সভাপতির এমন বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।  এটি নিয়ে অনেকে অনেক ধরনের মন্তব্যও করেছেন।  ৪ জানুয়ারির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে একটি বেসরকারি টেলিভিশনের টকশোতে অংশ নেন ছাত্রলীগের সভাপতি।  সেখানে ছাত্রলীগের নানা অর্জন ও অপরাধ নিয়ে কথা হয়।  এরমধ্যে প্রশ্নফাঁসে জড়িত থাকার বিষয়টিও আলোচনায় চলে আসে। 

টকশোতে ছাত্রলীগের সভাপতি বলেন, ‘বাংলাদেশের
কোথাও প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনাই ঘটে না, সেখানে কিভাবে ছাত্রলীগ জড়িত? কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশ্নপত্র ফাঁসের সুযোগ নেই।  প্রশ্নপত্র ফাঁস হয় নাই।  বাংলাদেশে এখন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার, সেখানে প্রশ্নপত্র ফাঁসের কোনো সুযোগ নেই।  অতএব বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কোথাও প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে জড়িত সেটার সঙ্গে আমি সম্পূর্ণ দ্বিমত। ’

তিনি বলেন, ‘আপনারা গ্রেফতারের যে বিষয়টি দেখেছেন, ‘সেটা ডিভাইস ক্যালেঙ্কারি।  আগের রাতে তাদের হাতে ডিভাইস ছিল।  যেটা পরীক্ষা চলাকালীন ব্যবহার করবে।  সেটাসহ তাদের আটক করেছে।  এটা প্রশ্নপত্র ফাঁস নয়।  ’

প্রসঙ্গত, ১৯ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে পরীক্ষায় ব্যবহারের বিশেষ কমিউনিকেশন ডিভাইসসহ প্রশ্নের ‘সমাধান দেয়া চক্রের’ দু’জন ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা মহিউদ্দিন রানাসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।   ডিভাইসসহ আটক হওয়া ছাত্রলীগ নেতা মহিউদ্দিন রানাকে সংগঠন থেকে আজীবন বহিষ্কার করা হয়।  এনিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। 

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, আমরা সেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশ্নফাঁস নিয়ে কথা বলছিলাম।  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সন্দেহভাজন একজনকে গ্রেফতার করেছে পরীক্ষার আগের দিন।  তার কাছে ডিভাইস ছিল, যেটা পরীক্ষার হলে নিয়ে যেতো হয়ত।  এটা তো ডিভাইস কেলেঙ্কারি বলতে পারেন, প্রশ্নফাঁস নয়।  প্রশ্নফাঁস হলো; পরীক্ষার আগে প্রশ্ন আউট করা বা প্রকাশ করা।  এটি (প্রশ্নফাঁস) বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে বাংলাদেশের কোথাও হয় না। 

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন