১৭, জানুয়ারী, ২০১৮, বুধবার | | ২৯ রবিউস সানি ১৪৩৯

অনেক নারী রোগীকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল ডা. রিয়াদ সিদ্দিকী!

১০ জানুয়ারী ২০১৮, ১০:০৩

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন চিকিত্সক একটি অনলাইনের সূত্রে জানাযায় তারা বলছেন, ডা. রিয়াদ সিদ্দিকী চর্ম ও যৌন রোগ বিভাগে যোগদানের পর থেকে বিভিন্ন নারী রোগীকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল।  শাহবাগ থানার ওসি আবুল হাসান জানান, বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 
 
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) এক চিকিত্সকের বিরুদ্ধে এক রোগীকে দফায় দফায় ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। 

বিএসএমএমইউ-এর চর্ম
ও যৌন বিভাগের চিকিৎসক রিয়াদ সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে সোমবার শাহাবাগ থানায় মামলাটি দায়ের করেন এ তরুণী।  ডা. রিয়াদ একাধিকবার তরুণীকে ধর্ষণ করেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে।  এ ঘটনায় নির্যাতিতার বাবা বাদী হয়ে গত সোমবার শাহবাগ থানায় মামলা দায়ের করেছেন। 
 
গতকাল মঙ্গলবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই রিপন কুমার বিশ্বাস ভুক্তভোগীকে আদালতে হাজির করেন।  পরে ঢাকা মহানগর হাকিম নুরুন নাহার ইয়াসমিন তার জবানবন্দি রেকর্ড করেন। 
 
এদিকে পুলিশ রিয়াদ সিদ্দিকীকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান চালিয়েছে।  বর্তমানে রিয়াদ সিদ্দিকী পলাতক রয়েছে বলে শাহবাগ থানা পুলিশ জানিয়েছে। 

জানা গেছে, ঘটনার শিকার তরুণীর বাড়ি ভোলায়।  সেখানে ডা. রিয়াদ সিদ্দিকীর ব্যক্তিগত চেম্বার রয়েছে।  চিকিৎসার জন্য ওই তরুণী তার চেম্বারে গেলে ডা. রিয়াদ তাকে ধর্ষণ করেন। 

এরপর গত সপ্তাহে ওই তরুণী চিকিৎসার জন্য ঢাকায় আসেন।  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের ডা. রিয়াদ তার চেম্বারে ওই তরুণীকে নিয়ে আবারও ধর্ষণ করেন।  এরপর তরুণীকে গত ৪ জানুয়ারি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করা হয়। 

মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শাহবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রিপন কুমার বিশ্বাস।  ডা. রিয়াদ বর্তমানে পলাতক আছেন বলেও জানান তিনি।