২০, জানুয়ারী, ২০১৮, শনিবার | | ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

মুসলিম যুবকের সঙ্গে বন্ধুত্ব রাখায় হুমকি, নোট লিখে আত্মঘাতী তরুণী

১০ জানুয়ারী ২০১৮, ১১:৫৫

মুসলিম বন্ধুর সঙ্গে যোগাযোগ রাখার জন্য অপমানিত হয়ে, হুমকির মুখে পড়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হলেন কর্নাটকের চিকমাগালুরের ২০ বছরের এক তরুণী। 

বেঙ্গালুরুর পুলিশ প্রধান কে আন্নামালাই জানিয়েছেন, কলেজের সহপাঠী এক মুসলিম বন্ধুর সঙ্গে ফেসবুকে নিয়মিত যোগাযোগ ছিল ওই তরুণীর।  এক দিন তরুণীটি ফেসবুকে লেখেন, ‘‘আমি মুসলিমদের পছন্দ করি। ’’ এর পর ফেসবুকেই তাঁকে সে কথা লেখার জন্য হুমকি দেওয়া হয়।  তার পরেও তরুণীটি ওই মুসলিম বন্ধুটির সঙ্গে নিয়মিত
যোগাযোগ রেখে চলায় গত শনিবার সন্ধ্যায় পাঁচ জন তাঁর বাড়িতে চড়াও হয়।  তরুণীর মা-বাবাকে তারা বলে, ওই মুসলিম যুবকটি তাঁদের মেয়েকে ফুঁসলিয়ে নিয়ে গিয়ে বিয়ে করে ধর্মান্তরণের চেষ্টা করছে।  এটা ‘লাভ জিহাদ’-এর ঘটনা।  তারা তরুণী ও তাঁর মা-বাবাকে প্রকাশ্যে অপমান করে।  হুমকি দেয়।  ভয় দেখায়।  মুসলিম বন্ধুটির সঙ্গে ওই তরুণীকে কোনও সম্পর্ক রাখতে বারণ করে ওই পাঁচ যুবক। 

আন্নামালাইয়ের কথায়, ‘‘ওই দিন রাতেই আত্মঘাতী হন তরুণীটি।  ওই ঘটনায় অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।  যে পাঁচ যুবক ওই তরুণীর বাড়িতে চড়াও হয়েছিল তাদের প্রত্যেকের নাম তাঁর সুইসাইড নোটে লিখে গিয়েছিলেন তরুণীটি।  তাদের মধ্যে এক জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  বাকি চার জনের খোঁজে তল্লাশি চলছে। ’’
এই ঘটনায় জড়িতরা কেউই ছাড় পাবে না বলে বেঙ্গালুরু পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে। 
বিধানসভা ভোটের মুখে কর্নাটকে ‘লাভ জিহাদ’-এর নামে এমন অত্যাচারের ঘটনা আকছার ঘটছে। 

এ মাসের শুরুতে উপকূলবর্তী দক্ষিণ কন্নড় জেলার পুত্তুরে ‘লাভ জিহাদ’-এর নামেই এক যুবক ও তাঁর বান্ধবীকে পুলিশ বেধড়ক পেটায় পুলিশ।  যুবতী পরে অভিযোগ করেন, তাঁরা দু’জন ভিন্ন ধর্মের হওয়ার জন্য তাঁদের এমন হেনস্থা হতে হয়েছে।  কর্নাটকের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পরে ওই ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। 
পুলিশ সূত্রের খবর, গত সপ্তাহে বশির আহমেদ নামে এক খাবারের দোকানের মালিকের ওপর চড়াও হন বিজেপি সমর্থকরা।  বশিরকে বেধড়ক পেটানো হয়।  রবিবার মৃত্যু হয়েছে বশিরের।  পুলিশ ওই ঘটনায় জড়িত চার জনকে গ্রেফতার করেছে।