১৬, জানুয়ারী, ২০১৮, মঙ্গলবার | | ২৮ রবিউস সানি ১৪৩৯

বিমানবন্দরে হাজার মুসল্লিদের বিক্ষোভ, সড়কে তীব্র যানজট

১০ জানুয়ারী ২০১৮, ০৪:৫১

বিমানবন্দরে তাবলীগ জামাতের বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের জিম্মাদার মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভির আসাকে কেন্দ্র করে বর্তমানে বিমানবন্দর এলাকায় বিক্ষোভ করছেন কয়েক হাজার মুসল্লি। 

বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরে আযম সিদ্দিকী বিমানবন্দর এলাকায় বিক্ষোভের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  এছাড়া ডেমরা এলাকায় বিক্ষোভও করেছে।  যাত্রাবাড়ী থানার ওসি আনিসুর রহমান বিক্ষোভের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

এদিকে মুসল্লিদের
বিক্ষোভ ও অবস্থানের কারণে ঢাকা-ময়মনসিংহ রোডের বিমানবন্দর এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।  ফলে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা।  শুধু তাই নয় বিদেশ থেকে আগত যাত্রীরা কাঙ্ক্ষিত যানবাহন না পেয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন। 

বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরে আযম সিদ্দিকী বলেন, বিমানবন্দর গোলচত্বর এলাকায় পূর্বঘোষিত শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ ও সমাবেশ করছেন আলেম-ওলামারা।  মাওলানা সাদকে যেন বাংলাদেশে আসতে দেয়া না হয় সে জন্য স্লোগান দিচ্ছেন তারা। ফলে আপাতত তাকে ইজতেমা মাঠে নেয়া হবে না।  তিনি বিমানবন্দরের ভেতরেই থাকবেন।  যানবাহন সচল রাখতে পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। 


সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, রাজধানীর বিমানবন্দর এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়কে হাজার হাজার আলেম ওলামারা বিক্ষোভ করছেন।  ব্যস্ততম এ সড়কে বিক্ষোভের ফলে যান চলাচল প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে।  ফলে গাজীপুর, আশুলিয়া, তুরাগ, বিমানবন্দর এলাকায় আটকে আছে কয়েকহাজার গাড়ি।  পুরো এলাকায় যান চলাচল স্থবির হয়ে পড়ায় পায়ে হেঁটেই চলাচল করছে সাধারণ মানুষ। 

বিতর্কিত ও আপত্তিকর মন্তব্যের কারণে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের অন্যতম আলেমগণ মাওলানা সাদ কান্ধলভীকে তাবলীগ জামাতের ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমায় না আসার আহ্বান জানায়। 

শান্তি ও নিরাপত্তার স্বার্থে গত ৭ জানুয়ারি যাত্রাবাড়ীতে জামিয়া ইসলামিয়া দারুল উলুম মাদানিয়ায় অনুষ্ঠিত তাবলীগের শুরা সদস্য ও আলেমদের বৈঠকে এবারের ইজতেমায় মাওলানা সাদের না আসার সিদ্ধান্ত হয়।  এর পরিবর্তে বৈঠকের ফয়সাল নিজামুদ্দিনের দুই পক্ষের প্রতিনিধিদের আসার সিদ্ধান্ত দেন। 

অন্যদিকে, বিশ্ব ইজতেমাকে কেন্দ্র করে রাজধানীর ডেমরা রোডের কাজলায় তাবলিগ জামাতের কর্মীরা সড়ক অবরোধ করেন বলে খবর পাওয়া গেছে।  বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তারা এই বিক্ষোভ শুরু করেন। 

জানা যায়, তাবলিগ জামাতের আমির মাওলানা মুহাম্মদ সাদ যাতে বাংলাদেশে আসতে না পারেন সেই দাবিতে সেখানেও তারা বিক্ষোভ শুরু করেন। 

তবে ভারতে সফরকারী সদস্যদেরকে মাওলানা সাদ ও তার পক্ষ থেকে যে প্রতিবেদন দিয়েছিলেন সেখানে তিনি স্পষ্ট বলে দিয়েছিলেন যে, আগের ধারাবাহিকতা রক্ষা করে তিনি এবারের বিশ্ব ইজতেমায়ও অংশগ্রহণ করবেন। 

উল্লেখ্য, বেশ কিছু দিন আগে 'তাবলিগ করা ছাড়া কেউ বেহেশতে যেতে পারবে না' মাওলানা সাদের এমন বক্তব্যের জের ধরে বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়। 

চলতি বছর ১২ জানুয়ারি এবং ১৯ জানুয়ারি দুই দফায় তিন দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে।  প্রথম দফায় ১৪ জানুয়ারি এবং দ্বিতীয় দফায় ২১ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।