২০, জানুয়ারী, ২০১৮, শনিবার | | ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

ত্রিদেশীয় সিরিজই হতে পারে মুস্তাফিজের আইপিএল ভাগ্য

১৪ জানুয়ারী ২০১৮, ০৪:৫৩

প্রথম আসরেই বাজিমাত করেছিলেন মুস্তাফিজ।  সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ কিনে নিয়েছিল মুস্তাফিজকে।  আর সেই আসরে সানরাইজার্সকে শিরোপা জিতিয়েই ছেড়েছেন মুস্তাফিজ।  তার বোলিংয়ের যাদুতে ব্যাটসম্যানরা ছিল দিশেহারা।  বলের লাইন লেন্থই বুঝতে পারছিলনা ব্যাটসম্যানরা।  আর তার এই পারফর্মেন্সের সুবাদে আইপিএলের সেরা তারকা হয়ে উঠেছিলেন বাংলাদেশি এই পেসার।  পুরো ভারতে এতটাই মুগ্ধ হয়ে গিয়েছিল যে, ভারতীয় ভক্তরা তাদের এক পেসারের বিনিময়ে মুস্তাফিজকে চেয়ে বসেছিল। 

পরের
আসরে আবারো সানরাইজার্সেই খেলেছেন মুস্তাফিজ।  তবে এবার আগের মত নয়, দলে হয়ে গিয়েছিলেন অবহেলিত।  সেটা তার ইনজুড়ির জন্য।  ইনজুড়িতে পরে নিজের অবস্থা এতটাই খারাপ করেছিলেন যে, বোলিং ঠিকমত হচ্ছিলনা।  লাইন লেন্থ হারিয়ে ফেলেছিলেন।  সেখান থেকে আসলেন দেশে।  নিষেধ উপেক্ষা করে গেলেন কাউন্টি খেলতে।  এরপরের ইতিহাস সবারই জানা।  অপারেশন ও নিজেকে ফিরে পাওয়ার লড়াই চলে এরপর মুস্তাফিজের। 

বিপিএলেও খুব একটা ভালো করেছেন বলা যাবেনা।  তবে বিপিএলে ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন স্বরুপে ফিরে আসার।  এবার তার সামনে ত্রিদেশীয় সিরিজ।  যেখানে তার প্রতিপক্ষ হিসেবে থাকবে জিম্বাবুয়ে ও শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটাররা।  খেলা আবার শুরু হবে আগামীকাল থেকে।  আর এখানেই নিজেকে প্রমান করার সুযোগ মুস্তাফিজের। 

আগামী ২৬ ও ২৮ জানুয়ারী হবে আইপিএলের নিলাম।  সেখানে মুস্তাফিজের ভিত্তি মুল্য ধরা হয়েছে ১ কোটি রুপি।  প্রথম মৌসুমের আইপিএলের মত পারফর্মেন্স মুস্তাফিজের থাকলে বর্তমানে মুস্তাফিজের দামটা হয়তো আকাশ সমানই হয়ে যেত।  কিন্তু সেই রকম না হওয়ায় এখন কিছুটা শঙ্কা তো থেকেই যাচ্ছে।  হয়তো তাকে নিলামে কেনা হবে কিন্তু প্রত্যাশা মত দাম পাবেনা।  তাই যদি তার কার্টার ঝলক আরেকবার এই ত্রিদেশীয় সিরিজে দেখানো যায় তাহলেই নিলামে কাড়াকাড়ি পড়ে যাবে আইপিএলের ফ্রাঞ্চাইজিগুলোর মধ্যে সেটা তো বলাই যায়।