২০, জানুয়ারী, ২০১৮, শনিবার | | ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

জেশন রয়ের তান্ডবে উড়ে গেল অষ্ট্রেলিয়া

১৪ জানুয়ারী ২০১৮, ০৫:২৮

ইংল্যান্ডের ওপেনিং ব্যাটসম্যান জেসন রয়ের তান্ডবে প্রথম ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে অষ্ট্রেলিয়াকে উড়িয়ে দিয়েছে ইংল্যান্ড।  অষ্ট্রেলিয়ার দেয়া ৩০৪ রানের বিশাল টার্গেট ৭ বল ও ৫ উইকেট হাতে রেখেই টপকে যায় ইংল্যান্ড। 

এর আগে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে  অ্যারন ফিঞ্চের সেঞ্চুরীতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ৩০৪ রান করে অষ্ট্রেলিয়া। 

প্রথম জুটিটা অবশ্য ভালো হয়নি অজিদের।  দলীয় ৫ রানের মাথায় অষ্ট্রেলিয়ার প্রথম উইকেটের পতন হয়।  মার্ক উডের
বলে মাত্র ২ রান করেই আউট হন ডেভিড ওয়ার্নার।  দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ফিঞ্চের সাথে দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন স্টিভেন স্মিথ।  তবে এই জুটিও বেশিখন স্থায়ী হয়নি।  আদিল রশিদের বলে দলীয় ৫৮ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ২৩ রান করে বিদায় নেন স্মিথ। 

স্মিথের বিদায়ের পর আবারো অজি শিবিরে আঘাত হানেন পাল্কনেট।  চার নম্বরে নামা ট্রেভিস হেডকে মাত্র ৫ রানের মাথায়ই সাজঘরে ফেরান ইংলিশ প্লাঙ্কনেট।  ৭৮ রানেই ৩ উইকেটে হারিয়ে বিপদে অষ্ট্রেলিয়ার প্রতিরোধের গল্পটা এখান থেকেই শুরু।  মিশেল মার্শকে সাথে নিয়ে এবার এগিয়ে যেতে থাকেন ফিঞ্চ।  এই জুটিতে দুজনে মিলে সংগ্রহ করেন ১১৮ রান।  এই সময়ে সেঞ্চুরী তুলে নেন ফিঞ্চ।  তবে সেঞ্চুরী করে স্থায়ী হতে পারেনি অজি তারকা।  দলীয় ১৯৬ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ১০৭ রান করে মইন আলীর বলে ক্যাচ তুলে বিদায় নেন তিনি।  ১১৯ বলের ইনিংসে ১০ টি চার ও ৩টি ছক্কা হাকান এই অজি ওপেনার। 

ফিঞ্চের বিদায়ের পর পরই বিদায় নেন মার্শ।  দলীয় ২০৫ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ৫০ রান করে আদিল রশিদের বলে বোল্ড হয়ে যান তিনি। 

এরপর অষ্ট্রেলিয়ার রান ৩০০ পার করতে ভূমিকা রাখেন স্টোইনিস।  তার ৪০ বলে ৬০ রানের ঝড়ো ইনিংসের সাথে টিম পেইনের ২৭ রানের সুবাধে ৩০৪ রান সংগ্রহ করে অষ্ট্রেলিয়া। 

ইংল্যান্ডের হয়ে লিয়াম প্লাঙ্কনেট তিনটি ও আদিল রশিদ দুটি উইকেট নেন। 

জবাবে শুরুটা ভালো হয়নি ইংল্যান্ডেরও।  তাদের ওপেনিং জুটিতে নামা বেয়ারস্টো আউট হন মাত্র ১৪ রান করেই।  কিন্তু ততক্ষনে ইংল্যান্ডের রান ৪.৪ ওভারে ৫৩ রান।  কারন অন্য পাশে তখন তান্ডব চালাচ্ছিলেন জেশন রয়।  বেয়ারস্টোর বিদায়ের পর মাঠে এসেই মাত্র ৪ রান করে কামিন্সের বলে বিদায় নেয় আরেক ঝড়ো তারকা আলেক্স হেলস। 

কিন্তু এ পর্যন্ত অষ্ট্রেলিয়ার সাফল্য।  এরপর শুধুই হতাশা।  আর অষ্ট্রেলিয়ার হতাশার দিনে ব্যাটের চার ছক্কার রং তুলিতে মাঠ সাজিয়ে দেন জেশন রয় ও জো রুট।  জো রুট তাও একটু দয়া মায়া করে খেলতে থাকেন অজি বোলারদের।  কিন্তু বেধরক পেঠাতে থাকে জেশন রয়।  যেন টেস্টে হারের বদলা নিতেই মাঠে নেমেছেন তিনি।  বেধরক পিটিয়ে করলেন সেঞ্চুরী।  কিন্তু তাতেও থামলেন কই।  কোন থামার নামই নেই।  কিন্তু তিনি থেমেছেন।  যখন থেমেছেন ততখনে অস্ট্রেলিয়ার সব শেষ হয়ে গেছে।  একেবারে ২৮৮ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ১৮০ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেই থামেন তিনি।   ইনিংসে ১৬টি চারের সাথে ৫টি ছক্কা মারেন এই ইংলিশ তারকা। 

তবে রয়ের বিদায়ের পর মরগান ও বাটলার দ্রুত বিদায় নিলেও জয় পেতে সমস্যা হয়নি ইংলিশদের।  বাকি রাস্তা তারা পার হয়ে যায় রুটের ব্যাটে।  ৯১ রানে অপরাজিত থেকে সেঞ্চুরী মিস করেছেন তিনিও। 

তবে ম্যাচের জয়ের কারনে নিশ্চই ডাবল সেঞ্চুরী ও সেঞ্চুরী মিসের হতাশা কমে যাবে রয ও রুটের।