১৯, ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, সোমবার | | ৩ জমাদিউস সানি ১৪৩৯

দ্বিতীয় বারের মত রাষ্ট্রপতি হচ্ছেন আবদুল হামিদ, বুধবার ঘোষণা

০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০৭:৪৭

টানা দ্বিতীয় মেয়াদে রাষ্ট্রপতি হতে যাচ্ছেন মো. আবদুল হামিদ।  কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী না বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীয় আবারো রাষ্ট্রপতি হতে যাচ্ছেন তিনি।  নির্বাচন কমিশন (ইসি) বুধবার মনোনয়নপত্র পরীক্ষা শেষে এ ঘোষণা দেবে। 

ইসির যুগ্ম-সচিব (চলতি দায়িত্ব) এসএম আসাদুজ্জামান জানান, এ বিষয়ে বুধবার বেলা সাড়ে ১২টায় ব্রিফ করে জানানো হবে। 

রাষ্ট্রপতি নির্বাচন আইন-১৯৯১ এর ৭ এ উল্লেখিত মনোনয়নপত্র পরীক্ষা করণ অংশে বলা হয়েছে, নির্বাচনী কর্তা ধারা ৫ এর
উপ-ধারা (১) এর অধীন প্রজ্ঞাপন দ্বারা নির্ধারিত দিন, সময় ও স্থানে মনোনয়নপত্র পরীক্ষা করিবেন, এবং পরীক্ষার পর মাত্র একজনের মনোনয়ন বৈধ থাকিলে নির্বাচন কমিশনার উক্ত ব্যক্তিকে নির্বাচন বলিয়া ঘোষণা করিবেন; তবে একাধিক ব্যক্তির মনোনয়ন বৈধ থাকিলে বৈধভাবে মনোনীত ব্যক্তি (অতঃপর প্রার্থী বলিয়া অবহিত)- দের নাম মনোনয়নপত্র পরীক্ষার দিন ঘোষণা করিবেন। 

সোমবার বিকেল ৪টা পর্যন্ত আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে নির্বাচনী কর্তা ও প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার  কাছে মনোনয়নত্র জমা দেয়ার শেষ সময় ছিল।  নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আবদুল হামিদের পক্ষ থেকে তিন কপি মনোনয়নপত্র জমা পড়ে।  এছাড়া আর কেউ মনোনয়নপত্র জমা দেননি। 

এর আগে গত ২ ফেব্রুয়ারি আবদুল হামিদের পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ। 

এবিষয়ে সিইসি সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘মনোনয়নপত্র বাছাই করা হবে ৭ ফেব্রুয়ারি।  যদি দেখি আর কোনো মনোনয়নপত্র আমাদের কাছে নেই।  তাহলে মনোনয়নপত্র আমরা যেটি পাব, সেদিন সেটিকে আমরা ঘোষণা করতে পারব। ’

‘একাধিক প্রার্থী থাকলে সে ক্ষেত্রে ভোট হয়।  আর ভোটার হলেন সংসদ সদস্যরা।  এমনই নিয়ম’ যোগ করেন তিনি। 

গত ২৫ জানুয়ারি নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী দেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কর্তার কাছে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ছিল সোমবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা।  মনোনয়নপত্র পরীক্ষা ৭ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা থেকে শেষ না হওয়া পর্যন্ত।  আর প্রত্যাহার ১০ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৪টা পর্যন্ত।  সংসদ ভবনে ভোটগ্রহণের কথা ছিল ১৮ ফেব্রুয়ারি বিকেল ২টা থেকে ৫টা পর্যন্ত।