অনির্দিষ্টকালের জন্য ইউএস-বাংলার ফ্লাইট বন্ধ ঘোষণা

গত সোমবার স্থানীয় সময় বেলা ২টা ২০ মিনিটে অবতরণের থাকলেও তার আগেই বিমান্টি বিধ্বস্ত হয়ে মাটিতে পড়ে বিমানবন্দরের পাশের একটি খেলার মাঠে । বিমানটিতে চারজন ক্রু ও ৬৭ যাত্রী ছিল। উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় ২৬ বাংলাদেশিসহ ৫০ জন নিহত হন। আহত হয়ে হাসপাতালে রয়েছেন ৯ বাংলাদেশিসহ ২১ জন। একসাথে বিদেশের মাটিতে এত মানুষ আর আগে কোন দুর্ঘটনায় মারা যায়নি।আগামি কাল রাষ্ট্রীয় শোক পালন করা হবে নিহতদের উদ্দেশ্যে।

এদিকে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস ঢাকা-কাঠমান্ডু রুটে তাদের উড়োজাহাজ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে। এ ঘটনার দুইদিন পর এয়ারলাইনসটি এ সিদ্ধান্ত নিল।

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের জনসংযোগ বিভাগের মহাব্যস্থাপক (জিএম) কামরুল ইসলাম সংস্থার কার্যালয়ে আজ বুধবার সাংবাদিকদের একথা জানান।

কামরুল সাংবাদিকদের বলেন, ত্রিভুবন কন্ট্রোল টাওয়ারের দোষ না থাকলে কেন তাদের ছয় কর্মকর্তাকে বদলি করা হলো? তিনি বলেন, দুর্ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ওই ছয় কর্মকর্তার মানসিক আঘাত প্রশমনে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, কাঠমান্ডু ফ্লাইট আপাতত বন্ধ থাকলেও অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক রুটগুলোতে ইউএস-বাংলার ফ্লাইটগুলো স্বাভাবিকভাবেই চলছে।

বর্তমানে বিমান সংস্থাটি অভ্যন্তরীণ রুটের পাশাপাশি কলকাতা, সিঙ্গাপুর, ব্যাংকক, কুয়ালালামপুর, মাসকাট, দোহা রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। চার বছর আগে যাত্রা শুরু করে ইউএস-বাংলা।