নিজের সদ্যজাত সন্তানকে ছুড়ে ফেলেদিলেন মা!
The news is by your side.

নিজের সদ্যজাত সন্তানকে ছুড়ে ফেলেদিলেন মা!

একজন মা কত কষ্ট করে সন্তান ধারণ করেন, লালন পালন করেন একমাত্র সেই মা’ই জানেন। কিন্তু সে মা ই যদি সন্তানকে ছুড়ে ফেলে দেন তাহলে তো ভয়াবহ ঘটনাই বলা যায়। কন্যাসন্তান হওয়ায় সদ্যজাতকে হাসপাতালের জানালা দিয়ে নীচে ছুড়ে ফেলল মা। ভয়ঙ্কর এই ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়া মেডিক্যাল কলেজে।

বাঁকুড়ার গঙ্গাজলঘাঁটি থানার কোকরাঝোড় গ্রামের বাসিন্দা ঝুমা মণ্ডল। রবিবার নিজে বাড়িতেই এক কন্যাসন্তানের জন্ম দেন। কিন্তু শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে আনা হয় বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজে।

রবিবার নিউবর্ন কেয়ার ইউনিটে শিশুটিকে স্তন্যপান করাতে ‌যান ঝুমা। সেখান থেকে সবার নজর এড়িয়ে শিশুটিকে নিয়ে চলে ‌যান বাথরুমে। তারপর বাথরুমের জানালা দিয়েই শিশুটিকে বাইরে ফেলে দেন বলে অভি‌যোগ। এরপর ওয়ার্ডে ফিরে শিশুটি চুরি হয়ে গিয়েছে বলে চিৎকার শুরু করেন। তবে চিকিৎসক ও নার্সদের চাপে তিনি শেষপ‌র্যন্ত শিশুটিকে জানালা দিয়ে ফেলে দেওয়ার কথা স্বীকার করেন।

পরিবারের দাবি, পরপর কন্যা সন্তান হওয়ায় প্রবল চাপে ছিলেন। অশান্তি এড়াতেই তিনি ওই কাজ করেছেন। এদিকে পুলিশের কাছে ঝুমার দাবি শিশুটি অসুস্থ হওয়ায় তিনি ওই কাজ করেছেন। কিন্তু প্রশ্ন উঠছে, কি এমন অসুস্থতা ‌যে সদ্যজাতর বেঁচে ওঠার সব আশা ছেড়ে তিনি ওই কাজ করলেন? নাকি কন্যাসন্তান হওয়ার জন্য গঞ্জনা থেকে বাঁচতেই ওই কাজে করেছেন ঝুমা? খতিয়ে দেখছে পুলিশ।