পিএসএলে ২য় শিরোপা জিতল ইসলামাবাদ

পাকিস্তান সুপার লিগের ফাইনালে পেশোয়ার জালমিকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছে ইসলামাবাদ ইউনাইটেড। রোববার করাচিতে অনুষ্ঠিত ফাইনালে পেশোয়ার জালমিকে ৩ উইকেটে হারায় তারা। পিএসএলে এটি তাদের দ্বিতীয় শিরোপা। ইসলামাবাদের নিয়মিত অধিনায়ক মিসবাহ উল হক ইনজুরির কারণে খেলতে না পারায় এদিন দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যান জেপি ডুমিনি।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি তারকায় ভরা জালমির। ইনজুরির কারণে তামিম ইকবাল খেলতে না পারায় এদিন কামরান আকমলের সাথে ইনিংস ওপেন করেছেন আন্দ্রে ফ্লেচার। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা কামরান ফাইনালের মঞ্চে এসে ব্যর্থ হয়েছেন। মাত্র এক রান করে আউট হয়েছেন সামিত প্যাটেলের বলে। ব্যর্থ হয়েছেন মোহাম্মদ হাফিজও। লিয়াম ডসন ও ক্রিস জর্ডানের চতুর্থ উইকেট জুটি দলটিকে লড়াইয়ে ফেরালেও স্কোরটা খুব বেশি বড় হয়নি।

ইসলামাবাদের বোলারদের প্রায় সবাই নিয়ন্ত্রিত বোলিং করেছেন। তরুণ লেগ স্পিনার শাদাব খান ২৫ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন। পেশোয়ারের দুই মিডল অর্ডার ক্রিস জর্ডান ৩৬ ও ডসন ৩৩ রান করেছেন। ফ্লেচার করেছেন ২১ রান। শেষ দিকে পেসার ওয়াহাব রিয়াজের ১৪ বলে ২৮ রানে ভর করে দলটি ষ পর্যন্ত ৯ উইকেটে ১৪৮ রানের সংগ্রহ পায়।

জবাব দিতে নেমে দাপটের সাথে ব্যাট করেছে ইসলামাবাদের দুই ওপেনার লুক রনকি ও সাহেবজাদা ফারহান। রনকি মাত্র ২৫ বলে ৫২ রান করেছেন, ফারহান করেছেন ৩৩ বলে ৪৪ রান। এ দুজনের ৯৬ রানের জুটিতে ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে ড্যারেন স্যামির পেশোয়ার। এরপর ২০ রানের মধ্যে পরপর ৬টি উইকেট হারালেনও ম্যাচ জিতে নিতে অসুবিধা হয়নি জেপি ডুমিনির দলের।

শেষ দিকে আসিফ আলী মাত্র ৬ বলে ২৬ রানের এক টর্নেডো ইনিংস খেলে ১৯ বল বাকি থাকতেই ম্যাচ শেষ করেন।

পেশোয়ার জালমির হয়ে এই ম্যাচ খেলতে টাইগার ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান করাচি গেলেও একাদশে জায়গা হয়নি তার।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ ও ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্টের দুটো পুরস্কারই উঠেছে লুক রনকির হাতে।