‘প্রতারণা করে জেতাটা আবার জেতা বলে নাকি’

কেপটাউন টেস্টে বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে পুরো বিশ্বের ধুয়োধ্বনি শুনতে হচ্ছে স্মিথ-ওয়ার্নারদের। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ব্যানক্রাফটের কাণ্ডে বিতর্কে পদ হারিয়েছেন স্মিথ-ওয়ার্নার দুজনেই।

এবার এ প্রসঙ্গে মুখ খুললেন বাংলাদেশ দলের অন্তবর্তীকালীন কোচ কোর্টনি ওয়ালশ। ওয়ালশ সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘আমি কখনও স্বপ্নেও ভাবিনি ক্রিকেটে এমন কিছু দেখতে হবে।ক্রিকেট কেন, বিশ্বের কোনো খেলায় এমন হোক সেটা আমি চাই না। আমি সব সময় যোগ্যতায় বিশ্বাসী। যোগ্যতা দিয়েই জিততে চাই। প্রতারণা করে জেতাটা আবার জেতা নাকি? এমন জয়ের চেয়ে মাথা উচু করে পরাজয় মেনে নেয়াটাও সম্মানের।’

টেস্ট জিততে মরিয়া হয়েই এমন জঘন্য প্রতারণার পরিকল্পনা করেছিলেন স্মিথরা। বল রিভার্স সুইং করছে না দেখে শনিবার ম্যাচের তৃতীয়দিন লাঞ্চের সময় দলের সিনিয়র ক্রিকেটাররা একসঙ্গে বসে নীলনকশা করেন। লক্ষ্য ছিল, জার্সিতে থাকা হলুদ রঙের টেপে উইকেটের ক্ষত অংশের মাটির দানা মাখিয়ে সেটা দিয়ে ঘষে বলের কন্ডিশন বদলানো।

স্মিথরা ভেবেছিলেন, চেনা মুখ না হওয়ায় ব্যানক্রফটের দিকে টিভি ক্যামেরার মনোযোগ থাকবে না। কিন্তু বাস্তবে ক্যামেরার চোখে ধুলো দিতে পারেননি ব্যানক্রফট। বল টেম্পারিং করতে গিয়ে ধরা পড়ে যাওয়ায় বাধ্য হয়ে সব স্বীকার করে নেন তিনি।