বল টেম্পারিংয়ের মত কাণ্ডে জড়িয়েছিলেন শচীন-দ্রাবিড়ও!

বল বিকৃতি (বল টেম্পারিং) হল বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম একটি জঘন্য ঘটনা। বলে অতিরিক্ত সুইং ও টার্ন পাওয়ার জন্য মাঠে ম্যাচ চলাকালীন বলের কোনো অংশে চুইংগাম বা অন্য যেকোন শক্ত জিনিস দিয়ে ঘষে বলের স্বাভাবিক উপরিভাগকে অমশ্রিন করে দেওয়ার নামই হল বিকৃতি (বল টেম্পারিং)।

এবার এই জঘন্য কাজে ফেঁসে গেলেন অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তৃতীয় টেস্টের তৃতীয় দিনে এমন কাণ্ড করে বসেন অস্ট্রেলিয়ার তরুণ পেসার ক্যামেরন ব্যানক্রফট। তবে ব্যানক্রফট যে এমন কিছু করবে সেটা জানতেন অজি অধিনায়ক। আর তাইতো দিনশেষে এর দায় স্বীকার করেন তিনিও।

তবে কেবল তারাই নয় এ ঘটনায় নাম জড়িয়েছে সাবেক গ্রেটদেরও। এমনকি এ তালিকায় রয়েছেন সাবেক ভারতীয় দুই তারকা রাহুল দ্রাবিড় ও শচীন টেন্ডুলকারের নামও। ২০০১ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পোর্ট এলিজাবেথে বল বিতর্কে জড়ান শচীন। ম্যাচে টিভি ক্যামেরায় দেখা যায় শচীন বলের উপর কি যেন একটা খুঁটছেন। আর তাই ম্যাচ রেফারি মাইক ডেনিস শচীনকে এক ম্যাচ নির্বাসন করেন। তবে পরে দেখা যায় শচীন বলের উপর লেগে থাকা ঘাস সরাচ্ছিলেন। আর তাই পরে তাকে মুক্তি দেয় আইসিসি।

অন্যদিকে ২০০৪ সালে অস্ট্রেলিয়াতে অনুষ্ঠিত ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে বল বিকৃতির বিতর্কে জড়ান রাহুল দ্রাবিড়। আর সে ঘটনায় তার হাফ ম্যাচ ফি কেটে নেওয়া হয়।