বাংলাদেশের সুন্দরী ১০ টেলি-নায়িকার অজানা তথ্য
The news is by your side.

বাংলাদেশের সুন্দরী ১০ টেলি-নায়িকার অজানা তথ্য

জাকিয়া বারি মম: জাকিয়া বারী মম (জন্ম: ১৪ আগস্ট, ১৯৮৫) একজন বাংলাদেশী অভিনেত্রী এবং মডেল। তিনি ২০০৬ সালে লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার সৌন্দর্য্য প্রতিযোগিতায় জয়লাভ করেন। ২০০৭ সালে তৌকির আহমেদ পরিচালিত দারুচিনি দ্বীপ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্র জগতে তার আবির্ভাব ঘটে। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি টেলিভিশন নাটকেও কাজ করেছেন।

জাকিয়া বারী মম ১৯৮৫ সালের ১৪ আগস্ট বাংলাদেশের ঢাকার বাহরামপুরে জন্মগ্রহন করেন। তার বাবা মজিবুল বারী ও মা আয়েশা আক্তার। তার শৈশব কাটে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায়। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আলাউদ্দিন খাঁ সঙ্গীতাঙ্গনে নাচ শিখেন কবিরুল ইসলাম রতনের কাছে। প্রথম টেলিভিশনে আবির্ভূত হন ১৯৯৫ সালে। তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশনের নতুন কুড়ি প্রতিযোগিতায় পুরুষ্কার লাভ করেন। এরপর ২০০৬ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার সৌন্দর্য্য প্রতিযোগিতায় জয়লাভ করেন।

জাকিয়া বারী মম ২০০৬ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার সৌন্দর্য্য প্রতিযোগিতায় জয়লাভের ফলে, হুমায়ূন আহমেদ রচিত ও তৌকির আহমেদ পরিচালিত দারুচিনি দ্বীপ চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পান মম। এই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। এরপর তিনি নাটকে অভিনয় করা শুরু করেন। তার অভিনীত স্বর্ণমায়া, বিবর, নীড় নাটকগুলো তাকে জনপ্রিয়তা এনে দেয়।

২০১৩ সালে সঙ্গীতশিল্পী তাহসানের বিপরীতে নীলপরী নীলাঞ্জনা ও এক্লিপস নাটকে অভিনয় করেন। পাশাপাশি ভালোবাসার চতুষ্কোণ ধারাবাহিক নাটকে কাজ করেন। ২০১৪ সালে যায়েদ খানের বিপরীতে প্রেম করব তোমার সাথে চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ২০১৫ সালে দীর্ঘদিন পর দ্বিতীয় কুসুম ধারাবিহিক নাটকে অভিনয় করেন। পাশাপাশি ব্যস্ত ছিলেন শিহাব শাহীন পরিচালিত ছুঁয়ে দিলে মন চলচ্চিত্র নিয়ে।[৪] রোমান্টিক ঘরানার এ চলচ্চিত্রে তার বিপরীতে অভিনয় করেন আরিফিন শুভ। এই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার-এ শ্রেষ্ঠ অভিনয়শিল্পী (নারী) বিভাগে তারকা জরিপ ও সমালোচক পুরস্কার অর্জন করেন।

২০১৬ সালে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিনে বেসরকারী চ্যানেল আরটিভির জন্য নির্মিত অপরিচিতা নাটকে তাকে দেখা যায়। নাট্যকার সুমন আনোয়ারের নির্দেশনায় তার বিপরীতে অভিনয় করেন রওনক হাসান।[৫] এই বছর ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নাট্যকার সুমন আনোয়ার নির্মিত পাঁচটি নাটকে অভিনয় করেন। নাটকগুলো হল ফুলমতি, আশার আলো, হলুদ বসন্ত, নীল দুপুর, আবর্ত। এছাড়াও ঈদুল ফিতর উপলক্ষে তাহসানের বিপরীতে তিন বছর পর নাগরিক মানুষের জীবন নিয়ে চিত্রিত এখন আর রূপকথা হয় না নাটকে অভিনয় করেন।

মম জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নাট্য এবং নাট্যতত্ত্ব বিভাগে ২০১০ সালে স্নাতক আর ২০১২ সালে স্নাতকোত্তর পাশ করেন। তিনি ২০১০ সালের ৩১ মার্চ এজাজ মুন্নাকে বিয়ে করেছেন। ২০১১ সালে তাদের একমাত্র ছেলে উদ্ভাস জন্মগ্রহণ করে।

অনিকা কবির শখ: আনিকা কবির শখ (জন্ম: ২৫ অক্টোবর, ১৯৯৩) যিনি শখ নামে বেশি পরিচিত, একজন বাংলাদেশী মডেল এবং অভিনেত্রী। শখের প্রথম টিভিনাটকে অভিনয় ২০০২ সালে শিশুশিল্পী হিসেবে স্বাক্ষর নামের একটি নাটকে। ধারাবাহিক অদ্ভুতুরে এর মাধ্যমে বড়দের চরিত্রে অভিনয় শুরু শখের। এছাড়াও তিনি এফএনএফ, ফিফটি ফিফটি, দিবা রাত্রি খোলা থাকে, রঙ সহ আরো কিছু নাটকে অভিনয় করেন।

তিনি পল্লব বিশ্বাস পরিচালিত কলেজ নাটকেও অভিনয় করেন। নাটক ছাড়াও তিনি সিটিসেল, বিডি গুঁড়া মসলা, ইউরো লেমন, তোশিন ফ্যান থেকে শুরু করে প্রচার-চলতি বাংলালিংক সহ বিভিন্ন কোম্পানির বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করেন।[৬] শখ অভিনীত প্রথম বাংলা চলচ্চিত্র হচ্ছে: বলো না তুমি আমার।

আনিকা কবির শখ ঢাকার ন্যাশনাল হাসপাতালে ১৯৯৩ সালের ২৫ অক্টোবর জন্ম গ্রহণ করেন। তাঁর বাবার নাম শামিম কবির এবং মায়ের নাম শাহিদা কবির। তাঁর পৈতৃক বাড়ি মুন্সিগঞ্জ জেলার, বিক্রমপুরে। তিনি ২০০৯ সালে এসএসসি শেষ করেন।

সবিলা নুর: সাবিলা নূর (জন্ম: মে ২৭, ১৯৯৫) একজন বাংলাদেশী মডেল এবং টেলিভিশন অভিনেত্রী। মডেলিংয়ের মাধ্যমে তার মিডিয়া জগতে আগমন ঘটে। টেলিভিশন বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করার পর তিনি কয়েকটি খণ্ড নাটকে অভিনয় করেন। সাবিলার প্রথম অভিনীত নাটক ইউ টার্ন।

সাবিলা ঢাকা জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। শৈশব থেকেই নাচের প্রতি আসক্তি ছিল। সাবিলা বুলবুল ললিতাকলা একাডেমি থেকে নাচ শিখে পদ্ম কুড়ি চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল যখন সে প্রথম শ্রেণীর ছাত্রী ছিল। সাবিলা নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়য়ে বিবিএ তে পড়ালেখা সম্পন্ন না করে কয়েক মাস দেশের বাইরে ছিলেন। বর্তমানে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে বিএ ইন ইংলিশ পড়ছেন। সাবিলার মা নাচ করতেন এবং বড় বোন যুক্তরাষ্ট্রে মঞ্চ নাটকে অভিনয় করেন।

সাবিলা ২০১৪ সাল থেকে মডেলিং এর মাধ্যমে অভিনয় জগতে প্রবেশ করেন। তার জনপ্রিয় বিজ্ঞাপনগুলোর মাঝে রয়েছে গ্রামীণ ফোন, নেস্কেফে, প্রান ফিট ইত্যাদি। সাবিলা অনেক জনপ্রিয় টেলিফিল্ম, নাটক, মডেলিং এবং বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন তারমধ্যে বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা অর্জন করেন।

নুসরাত ইমরোজ তিশা (জন্ম: ২০ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৬) বাংলাদেশের একজন জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী। টিভি নাটকের মাধ্যমে তিনি তার অভিনয় জীবন শুরু করেন। তবে গান দিয়েই শুরু হয়েছিল তিশার পথচলা। খুব অল্প সময়ের মধ্যে তিনি সকল শ্রেণীর দর্শকদের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে উঠেন। বর্তমানে তিনি বিভিন্ন টিভি বিজ্ঞাপন ও নাটকে নিয়মিত অভিনয় করছেন। পাশাপাশি কিছু চলচ্চিত্রেও কাজ করেছেন। তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রসমূহ হল নাট্যধর্মী থার্ড পারসন সিঙ্গুলার নাম্বার (২০০৯), টেলিভিশন (২০১২), ক্রীড়া নাট্যধর্মী অস্তিত্ব (২০১৬), নাট্যধর্মী ডুব (২০১৭) এবং হালদা (২০১৭)।

১৯৯৫ সালে নতুন কুঁড়ি প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান পাওয়া তিশার মিডিয়া জগতে পদার্পণ টেলিভিশনের মাধ্যমেই। শিশুশিল্পী হিসেবে মূলত গান করতেন। ১৯৯৭ সালে অনন্ত হীরার সাতপেড়ে কাব্য নামে একটি নাটকে শিশুশিল্পী হিসেবে শখের বশে অভিনয়ের মাধ্যমে অভিনয় জগতে পদার্পণ করেন। ২০০৩ সাল থেকে অভিনয় ও মডেলিং ব্যস্ত হয়ে পড়েন তিনি। তিশা এঞ্জেল ফোর নামের একটি ব্যান্ড দলও গঠন করেছিলেন।

১৯৯৮ সালে সাত প্রহরের কাব্য নাটক দিয়ে তিশার টেলিভিশন পর্দায় অভিষেক হয়। নাটকটি রচনা করেন অনন্ত হীরা এবং পরিচালনা করেন আহসান হাবীব।
২০১৪ সালে তিনি দীর্ঘ ৬ বছর পর টেলিভিশন বিজ্ঞাপনে কাজ করেন। তাকে স্কয়ারের একটি পণ্যের বিজ্ঞাপনে সঙ্গীতশিল্পী তাহসানের বিপরীতে দেখা যায়। ২০১৬ সালে তার অভিনীত দুটি মূলধারার বাণিজ্যিক চলচ্চিত্র মুক্তি পায়। ৬ই মে মুক্তি পাওয়া অস্তিত্ব চলচ্চিত্রে তিনি একজন বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরী চরিত্রে অভিনয় করেন। অনন্য মামুন পরিচালিত এই ছবিতে তার বিপরীতে ছিল আরিফিন শুভ। শুভর সাথে তিনি পূর্বে ফারুকী পরিচালিত ওয়েটিং রুম টেলিছবিতে অভিনয় করেছিলেন। অন্যদিকে অপর চলচ্চিত্র রানা পাগলা: দ্য মেন্টাল-এ তিনি শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেন। ২০১৭ সালে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর বহুল আলোচিত ডুব চলচ্চিত্রে একজন স্বনামধন্য পরিচালকের কন্যা চরিত্রে কাজ করে তিনি প্রশংসিত হন। এতে তার বাবার চরিত্রে অভিনয় করেন ইরফান খান। একই বছর তিনি হালদা নদী নিয়ে সচেতনতামূলক হালদা চলচ্চিত্রে হাসু চরিত্রে অভিনয় করে প্রশংসা অর্জন করেন।

২০১৮ সালে ভালোবাসা দিবস উপলক্ষ্যে সাগর জাহান নির্মিত একটি মধ্যবিত্ত ফ্রিজের গল্প নাটকে তাকে তাহসানের বিপরীতে দেখা যায়। তিনি ফারুকী নির্মিত ডাবর মেথি আমলা হেয়ার অয়েলের বিজ্ঞাপনে কাজ করেন।

ব্যক্তিগত জীবনে তিশা ২০১০ সালের ১৬ জুলাই টিভি ও চলচ্চিত্র পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। ২০১৪ সালের অক্টোবরে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে তিশার অ্যাপেনডিসাইটিসের অস্ত্রোপচার হয়।

তিশা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে বিচ্যুত ছিলেন। এতে তার ভুয়া অ্যাকাউন্ট থেকে ভক্তরা প্রতারিত হচ্ছিল। তাই তিনি ২০১৬ সালের নভেম্বরে তার একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলেন। অ্যাকাউন্টটি পরিচালনা করে পপকর্ন ডিজিটাল।

তিশা চলচ্চিত্র দেখতে পছন্দ করেন। তার প্রিয় চলচ্চিত্র হল ন্যাটালি পোর্টম্যান অভিনীত ব্ল্যাক সোয়ান। এছাড়া স্টিল অ্যালিস চলচ্চিত্রে জুলিঅ্যান মুরের করা চরিত্রটি তার পছন্দের চরিত্র।

রফিয়াত রশিদ মিথিলা:

ঈশিকা খান:

মেহজাবিন চৌধুরী:

শাহতাজ মনিরা:

সাফা কবির:

অপর্ণা ঘোষ: