বিছানায় কেমন শহিদ , জানালেন তার স্ত্রী মিরা!

চকোলেট বয় ইমেজ নিয়ে বলিউডে নিজের যাত্রা শুরু করলেও, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে নিজেকে পাল্টে ফেলতে কখনোই দ্বিধা করেননি শহিদ কাপুর। সে কারণেই হয়তো ‘যব উই মেট’, ‘হায়দার’, ‘উড়তা পাঞ্জাব’ ও ‘পদ্মাবত’-এর মতো ছবিগুলোতে তার অভিনীত ভিন্ন ভিন্ন চরিত্র দর্শকদের মনে দাঁগ কেটেছে।

বলিউডের প্রথমসারির সব তারকাদের মতো বিভিন্ন সময়ে শহিদ কাপুরেরও নাম জড়িয়েছে তার সহ-অভিনেত্রীদের সঙ্গে। যার মধ্যে বহুল চর্চিত সম্পর্ক ছিল নবাব পরিবারের পুত্রবধূ কারিনা কাপুরের সঙ্গে। এ জুটির ব্রেক-আপের পর কারিনাই আগে সংসার পাতেন সাইফ আলীর সঙ্গে।

এরপর ২০১৫ সালে শহিদ কাপুরের বিয়ে হয় মীরা রাজপুতের সঙ্গে। শোনা যায়, বাবা পঙ্কজ কাপুরেরই পছন্দ করা পাত্রী ছিলেন দিল্লিবাসিনী মীরা। বলিউডের সঙ্গে কোনো যোগসূত্রই ছিল না শহিদের স্ত্রী মীরার।

বিয়ের পরে অনেক অনুষ্ঠানেই স্বামী শহিদ কাপুরের সঙ্গে দেখা গেছে স্ত্রী মীরাকে। টেলিভিশনের জনপ্রিয় টক-শো ‘কফি উইথ করণ’-এও মীরাকে বেশ খোলামেলা কথা বলতে দেখা গেছে। যেমন, শহিদের প্রাক্তন প্রেমিকাদের ব্যাপারে তার মতামত, তাদের ঝগড়া হলে কীভাবে মিটমাট হয় ইত্যাদি।

নিজেদের বেশ কিছু ব্যক্তিগত কথাও অনেক সময়েই অকপটে বলেন মীরা। ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, সম্প্রতি এমনই এক চ্যাট-শোয়ে বেশ কিছু প্রশ্নের ‘সাহসী’ জবাব দিতে শোনা গেছে মীরাকে। বিছানায় শহিদ কাপুরের পারফর্মেন্স কেমন, সেটাই জানিয়ে দিলেন একটি অনুষ্ঠানে। শুনে অবাক লাগতে পারে। তবে সত্যিই তিনি এমন বিস্ফোরক মন্তব্য করতে দ্বিধা করেননি।

সম্প্রতি নেহা ধুপিয়ার চ্যাট শো’তে এসেছেন শহিদ-মিরা দম্পতি। যারা বলিউডের অন্যতম সুখী দম্পতি হিসেবে স্বীকৃত। সেই অনুষ্ঠানে মিরার কাছে জানতে চাওয়া হয়, বিছানায় তাদের প্রিয় পজিশন কী?

উত্তরে মিরা জানান, বিছানায় শহিদ ‘কন্ট্রোল ফ্রিক’। কী করতে হবে, কী করতে হবে না, সব শহিদই বলে দেয়। অর্থাৎ তার কাছেই সব নিয়ন্ত্রণ থাকে।

মিরার এমন বোমা ফাটানো উত্তরে অনেকটাই লজ্জা পান শহিদ কাপুর। তবে ক্ষণিকের মধ্যে নিজেকে সংযত করে স্বাভাবিক হন। এদিকে শহিদ-মিরার এই বেডরুম সিক্রেটের খবর এরই মধ্যে ভাইরাল হয়ে গেছে। বিভিন্ন গণমাধ্যম থেকে শুরু করে সোশ্যাল মিডিয়াতেও চলছে তুমুল আলোচনা।