বিতর্কিত পেনাল্টিঃ বার্সাকে রুখে দিল লাস পালমাস

লিওনেল মেসির ফ্রি কিকে এগিয়ে গিয়েছিল বার্সা। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে রেফারির বিতর্কিত সিদ্ধান্তে পেনাল্টি থেকে সমতা ফেরায় লাস পালমাস। জোনাথন কায়েরির ওই গোলে ২০০২ সালের পর প্রথমবার বার্সার বিপক্ষে একটি পয়েন্ট উদ্ধার করে তারা।

লা লিগায় ২০১৬ সালের পর এই প্রথম বার্সার বিরুদ্ধে পেনাল্টির বাঁশি বাজলো, ৭৯ ম্যাচ পর।

গত সপ্তাহে জিরোনার বিপক্ষে পাঁচ গোল করা মেসি ও লুইস সুয়ারেস অষ্টম মিনিটে দলকে এগিয়ে নিতে পারতেন। মিডফিল্ড থেকে বল নিয়ে প্রতিপক্ষের রক্ষণ ভেদ করে ডিবক্সের মধ্যে ঢুকে যান মেসি, গোলরক্ষক লিয়ান্দ্রো চিচিজোলাকে একা পেয়েও নিঃস্বার্থভাবে পাস দেন সুয়ারেসকে। কিন্তু পাস দুর্বল হওয়ায় উরুগুয়ান স্ট্রাইকারের শট সহজে ঠেকান চিচিজোলা।

১৪ মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া মেসির প্রথম ফ্রি কিক জালে ঢুকতে দেননি লাস পালমাস গোলরক্ষক। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডে বাঁকানো শট বাঁ দিকে ঝাপিয়ে পড়ে মাঠের বাইরে পাঠান চিচিজোলা। তবে ২১ মিনিটে জাভি নাভারো পেছন দিক থেকে ফাউল করলেও পাঁচবারের ব্যালন ডি’অরজয়ী পড়ে যাননি। রেফারি বক্সের বাইরে থেকে আরেকটি ফ্রি কিকের বাঁশি বাজান। এবার আর্জেন্টাইন তারকার ফ্রি কিক স্বাগতিক রক্ষণ দেয়াল ফাঁকি দিয়ে কোনাকুনি হয়ে লক্ষ্যভেদ হয়।

বিরতির ৯ মিনিট আগে সুবর্ণ সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি লাস পালমাস। স্বাগতিকদের আক্রমণ ঠেকিয়ে দেন বার্সা গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টের স্টেগেন। প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে রেফারির ভুল সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ হয়েছিল বার্সা। সুয়ারেসকে বল নিয়ে আসতে দেখে স্লাইড করেছিলেন চিচিজোলা। বক্সের বাইরে পা দিয়ে বল বিপদমুক্ত করতে না পারলেও তার হাতে লাগে বল। কিন্তু অনিচ্ছাকৃত ভুল উল্লেখ করে রেফারি আন্তোনিও মাতেউ তাকে শাস্তি দেননি।

দ্বিতীয়ার্ধে অতিথিদের বিরুদ্ধে আরও একবার ভুল সিদ্ধান্ত দেন রেফারি, যার সূত্রপাত অ্যালেন হালিলোভিচের কর্নারে। সার্জি রবের্তোর ছোঁয়ায় আগুয়েরেগ্যারে পড়ে যান এবং বল সুয়ারেসের মাথায় লেগে গোলপোস্টে আঘাত করে ফিরে যায়। বল দিগনের হাতে লেগেছে ভেবে পেনাল্টি দেন মাতেউ। কায়েরি এই সুযোগ নষ্ট করেননি, উঁচু শটে সমতা ফেরান।

কিছুক্ষণ পর ফিলিপ কৌতিনিয়ো বদলি নামেন। কিন্তু ম্যাচের ফল বদলাতে পারেননি। ব্যাকপোস্টে দুটি ভালো সুযোগে গোল করতে পারেননি সুয়ারেস। প্রথমটি ডিফেন্ডাররা প্রতিহত করেন এবং দ্বিতীয়টি গোলপোস্টের কয়েক ইঞ্চি বাইরে দিয়ে চলে যায়। শেষদিকে ইভান রাকিতিচ ও উসমান দেম্বেলেকে নামালেও বার্সা পুরো পয়েন্ট উদ্ধার করতে পারেনি। ইএসপিএনএফসি