মৃত্যুর আগে যা ভবিষ্যৎ বানী করে গেলেন স্টিফেন হকিং

আজ বুধবার ভোরে ক্যামব্রিজে নিজ বাড়িতেই মৃত্যুবরণ করলেন বিশ্বখ্যাত পদার্থবিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং। মত্যু কালে তার বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর।তত্ত্বীয় পদার্থবিদ্যার এ গুরু কৃষ্ণগহ্বর ও আপেক্ষিকতা নিয়ে কাজের জন্য বিশ্বজুড়ে সুপরিচিত ছিলেন। পৃথিবীর ভবিষ্যৎ ব্রিটিশ এই বিজ্ঞানী ২০১৭ সালের নভেম্বরে চীনের বেইজিংয়ে টেনসেন্ট ডব্লুই শীর্ষ সম্মেলনে ভিডিও বার্তায় যা বলেছিল;এন তা পাঠকদের ঞ্জন্য তুলে ধরা হলো-

বিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং বলেন ,আর মাত্র ৬০০ বছরের মধ্যেই পৃথিবীর অস্তিত্ব হারিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।ঠিক ৬০০ বছরে পৃথিবী এতটাই উষ্ণ হয়ে উঠবে যে আমাদের এই গ্রহ বদলে যাবে অগ্নিপিণ্ডে। কারণ হিসাবে তিনি বলেন, যে হারে দ্রুত হারে জন বিস্ফোরণের জন্য শক্তির ব্যবহার বাড়ছে। তার জেরে বাড়ছে উষ্ণায়নের মাত্রা। তার ফলে আগামী ২৬০০ সালের মধ্যে এই গ্রহ পুরোমাত্রায় অগ্নিপিণ্ডে পরিণত হয়ে আর বাসযোগ্য থাকবে না।

হকিং আরো বলেন, এই থেকে রেহাইন পাবার জন্য সবাইকে পৃথিবীর বিকল্প খুঁজে বের করতে হবে, যেখানে তারা চলে যেতে পারে। সেরকম একটি নক্ষত্রের সন্ধানও দিয়েছেন ব্ল্যাক হোল থিওরির আবিষ্কারক। পৃথিবী থেকে ৪ বিলিয়ন আলোকবর্ষ দূরে রয়েছে আলফা সেঞ্চুউরি নামে একটি নক্ষত্র,যার আবহাওয়া মণ্ডল আমাদের গ্রহের
মতোই।

হকিংয়ের মতে, আলফা সেঞ্চুউরি দ্রুত পৌঁছাতে প্রয়োজন অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ছোট্ট একটি বিমান যা আলোর গতিতে ছুটবে। যে বিমানে চড়ে মঙ্গলে এক ঘণ্টারও কম সময়ে, প্লুটোতে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এবং আলফা সেঞ্চাউরিতে মাত্র ২০ বছরের মধ্যে পৌঁছনো সম্ভব।