রাজধানীতে এবার দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষিত, ধর্ষক গ্রেফতার

রাজধানীর নীলক্ষেত এলাকায় মো. সালেহ আহাম্মেদ (৪০) নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে দ্বিতীয় শ্রেণির এক ছাত্রী (৭) ধর্ষণ হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় শিশুটির বাবা ধর্ষণের ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন। শাহবাগ থানা পুলিশ ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত মো. সালেহ আহাম্মেদকে গ্রেফতার করেছে।

শিশুটির বাবার অভিযোগের পর ভিকটিমকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করে শাহবাগ থানার পুলিশ।

এঘটনায় শিশুটির বাবা অভিযোগ করে বলেন, নীলক্ষেত এলাকার একটি স্কুলের দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ে তার মেয়ে। মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে ক্লাস থেকে বেরিয়ে এলে সেখান থেকে স্কুলের দারোয়ান সালেহ আহমেদ (৪০) তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে স্কুলের পেছনে নির্জনে নিয়ে যায়। সেখানে প্রলোভন ও ভয়ভীতি দেখিয়ে মেয়েকে ধর্ষণ করে। স্কুল শেষে মেয়ে বাসায় ফিরে এলেও বিষয়টি কাউকে জানায়নি। তার মা তার জামা কাপড় ধোয়ার সময় অনেক রক্তের দাগ দেখতে পেয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে ঘটনার বিস্তারিত জানায় সে।

ঘটনাটি সম্পর্কে শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান জানান, এ ঘটনায় একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছে। আসামিকে আদালাতে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে ওসিসির সমন্বয়ক ডা. বিলকিস বেগম জানান, শিশুটি বুধবার ভোরে আমাদের এখানে ভর্তি করা হয়েছে। সকালে তার ফরেনসিক করা হলে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। তবে আরো কিছু পরীক্ষা বাকি রয়েছে। এগুলো করে ফরেনসিক রিপোর্ট হাতে পেয়ে বিস্তারিত বলা যাবে।