রাশিয়া বিশ্বকাপ বয়কটের চিন্তা করছে অস্ট্রেলিয়া

সাবেক গুপ্তচর ও তার মেয়েকে হত্যাচেষ্টার ঘটনায় রাশিয়াকে দায়ী করে ইউরোপের বেশ কয়েকটি রাষ্ট্রসহ যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া ও জাপান তাদের দেশ থেকে রাশিয়ান কূটনীতিককে বহিষ্কার করেছে।

এর পাশাপাশি জুনে রাশিয়ায় অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপ বয়কটেরও চিন্তাভাবনা করছে দেশগুলো। মঙ্গলবার অস্ট্রেলিয়ার সরকার জানিয়েছে, রাশিয়ার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হিসেবে বিশ্বকাপ বয়কটের চিন্তা করছেন তারা।

অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুলি বিশপ বলেছেন, ‘রাশিয়ার বিপক্ষে পরবর্তীতে আরো ব্যবস্থা নেয়া হবে। বিশ্বকাপ বয়কট পরবর্তীতে সেরকম একটা ব্যবস্থা হতে পারে।’

এদিকে এ ঘটনায় যুক্তরাজ্যসহ আরো ৫টি দেশ বিশ্বকাপ বয়কটের চিন্তা করছে। দেশগুলো হচ্ছে, পোল্যান্ড, আইসল্যান্ড, ডেনমার্ক, সুইডেন ও জাপান। আইসল্যান্ড প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ ফুটবলে অংশ নিচ্ছে।

দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী গাডলাগুর থর থরডার্সন সোমবার টুইটারে লিখেছেন, ‘সালিসবুরির ঘটনায় আইসল্যান্ড যুক্তরাজ্যের সাথে সংহতি প্রকাশ করছে। উচ্চপর্যায়ে দ্বিপাক্ষিক সংলাপ স্থগিত হয়েছে। এর অর্থ হচ্ছে আইসল্যান্ড বিশ্বকাপে অংশ নিচ্ছে না। আমরা তদন্তে সহযোগিতা করার জন্য রাশিয়ার প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।’

এদিকে গত সপ্তাহে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে ঘোষণা করেছেন, ব্রিটিশ রাজপরিবার কিংবা দেশটির সরকারের কোন মন্ত্রী রাশিয়ার বিশ্বকাপে যাচ্ছে না।

মার্চের ৬ তারিখ রাশিয়ার ৬৬ বছর বয়সী সাবেক গুপ্তচর সের্গেই স্কিরপাল ও তার ৩৩ বছর বয়সী মেয়ে সালিসবুরিতে কোন অজ্ঞাত বস্তুর সংস্পর্শে আসেন। এ ঘটনায় রাশিয়াকে অভিযুক্ত করে যুক্তরাজ্য। কিন্তু রাশিয়া এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।