সুনীল গাভাস্কারের আইডি মুছে দিল ফেসবুক

সুনীল গাভাস্কার ভারত জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ও প্রথিতযশা ব্যাটসম্যান। তাঁকে ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে ধরা হয়। তিনি সর্বাধিকসংখ্যক টেস্ট রান ও সেঞ্চুরি নিয়ে ক্রীড়াজীবন শেষ করেন।

২০০৫ সালে আরেক ভারতীয় ক্রিকেটার শচীন তেন্ডুলকর তাঁর গড়া টেস্ট রেকর্ড ভেঙ্গে ফেলেন। ১৯৮৩ সালের ভারতীয় ক্রিকেট দলের সদস্য হয়ে তিনি আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয় করেন।

তথাকথিত সভ্য দুনিয়ার এই ক্রিকেটার ১৯৮১ সালে স্ট্রেঅলিয়ার বিপক্ষে এলবি দেয়াকে কেন্দ্র করে সতীর্থকে নিয়ে মাঠ ছেড়ে উঠে গিয়েছিলেন।

সেই সুনীল গাভাস্কারই কি-না সদ্য সমাপ্ত নিদাহাস ট্রফিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে আম্পায়ারের অনৈতিক সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করে সতীর্থ মাহমুদউল্লাহ এবং রুবেল হোসেনকে মাঠ ছেড়ে উঠে আসতে বলায় সাকিব আল হাসানের কঠোর সমালোচনা করলেন!

সাকিবের এই আচরণ তথাকথিত সুশিল সুনীল গাভাস্কারের ভালো লাগেনি। তিনি কঠোর শাস্তিও দাবি করেছিলেন সাকিবের।

শুধু তাই নয়, বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের জয় উদযাপনের আলোচিত ‘নাগিন’ নাচকেও ব্যঙ্গ করেছেন তিনি।

সুনীলের ব্যঙ্গাত্মক নাচ এবং সাকিবের প্রতি বিশোদগার করার তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বাংলাদেশি ক্রিকেট সমর্থকরা। এ কারণে বাংলাদেশের ইথিকাল হ্যাকারদের একটি গ্রুপ ফেসবুকে রিপোর্ট করে সুনীল গাভাসকারের ফেসবুক আইডিটি মুছে ফেলতে বাধ্য করে।

সোমবার (১৯ মার্চ) সন্ধ্যায় সুনিলের আইডিটি মুছে ফেলে ফেসবুক। কারণ হিসেবে ফেসবুক জানায়, ‘সুনীল গাভাস্কারের প্রোফাইলটি ফেসবুকের সাম্প্রদায়িক মানদণ্ড অনুযায়ী পরিচালিত না হওয়ায় এটি মুছে ফেলা হয়েছে।’

সাইবার-৭১, উই হ্যাক টু প্রোটেক্ট বাংলাদেশ- নামক একটি ফেসবুক পেজে এ খবর জানানো হয়েছে। সেখানে তারা ফেসবুক কর্তৃক সুনিল গাভাস্কারকে লেখা বার্তার স্ক্রিন শর্টও প্রকাশ করেছে।

একই সঙ্গে তারা আরো লিখেছে, বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে ব্যঙ্গ করায় অভিযোগ করে সুনীল গাভাস্করের ফেসবুক ডিজেবল করে দিয়েছে বীর বাঙালি।