সাইকেল চালিয়ে দেশ ভ্রমনে বের হওয়া আহসান হাবিব এখন শাহজাদপুরে
The news is by your side.

সাইকেল চালিয়ে দেশ ভ্রমনে বের হওয়া আহসান হাবিব এখন শাহজাদপুরে

ফারুক হাসান কাহার, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি : সাইকেল চালিয়ে বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয়, সামাজিক ও জন কল্যাণে বাস্তবায়িত ও নির্মিত স্থান দর্শন এবং দেশের ৬৪ জেলার দর্শনীয় স্থান সম্পর্কে জানতে ও ঞ্জান অর্জন করতে ঘর ছেড়েছেন ঠাঁকুরগাও জেলার রানীশংকৈল উপজেলার ভান্ডারা গ্রামের আহসান হাবিব (২৯) ।

তিনি ঠাঁকুরগাও জেলার রানীশংকৈল উপজেলার আইনুল হকের ছেলে । আহসান হাবিব পেশায় ব্যাবসায়ী । তিনি জানান, গত ২ এপ্রিল ঠাঁকুরগাও জেলার রানীশংকৈল উপজেলার ভান্ডারা গ্রামের নিজ বাড়ী থেকে তিনি বাই সাইকেল নিয়ে যাত্রা শুরু করেন। এখন পর্যন্ত তিনি ১৫ জেলা ভ্রমন শেষে বর্তমানে সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলায় অবস্থান করছেন।তিনি শাহজাদপুর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী ও দর্শনীয় স্থানগুলো ভ্রমন করেছেন।

বৃহস্পতিবার (১৯ এপ্রিল) রাতে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন শাহজাদপুর শাখার অফিসে আসেন। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন শাহজাদপুর শাখার সাধারন সম্পাদক মুস্তাক আহমেদ, সভাপতি গোলাম সাকলায়েন এর সাথে কথা হয় । সেখানে মানবাধিকার কর্মী ও সাংবাদিক ফারুক হাসান কাহার, রাজীব রাসেল, শুভ্র চৌধুরী শাহিনুর রহমান শাহিনেরর সাথেও কথা হয় আহসান হাবিবের ।

তিনি জানান, সারাদেশের দর্শনীয় স্থান সম্পর্কে জানতে ও ঞ্জান অর্জন করতেই বের হয়েছেন । পরিবারের উৎসাহ ও নিজের ইচ্ছের কারনে এই কাজে বের হয়েছেন বলেও জানান। তিনি বলেন, “দর্শনীয় স্থানগুলোর তথ্য ও কিছু নমুনা সংগ্রহ করছি । ইউনিয়ন পরিষদ বা ডাক বাংলোতে অথবা হোটেলে রাত্রিযাপন করেন। আর খাবারের খরচ বাড়ি থেকে পাঠানো হয় বলে জানান তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,ছোটবেলা থেকেই সাইকেল চালানো অভ্যাস। সাইকেল নিয়ে ঘুরাফেরা করতে ভাল লাগে। সাইকেল নিয়ে সারাদেশ ভ্রমনের জন্য একই এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা হামিদুর রহমান উদ্ভুদ করেছেন । পরে বাবা-মায়ের অনুমতি নিয়ে ঘর ছেরেছেন তিনি।

অপর প্রশ্নের জবাবে বলেন, তারা ৪ ভাই ২ বোন, আহসান হাবিব মেঝ, বাবা ব্যাবসায়ী -মা গৃহিনী। তিনি সারাদেশে সাইকেল ভ্রমন করে যেন সফলতা অর্জন করে বাবা-মায়ের কাছে ফিরে আসতে পারে সেজন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।