তালতলীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্রকরে এক যুবক কে পিটিয়ে হত্য আটক ৬

বরগুনা প্রতিনিধি: বরগুনার তালতলীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে খালেক মৃধা (৩৫) নামের এক যুবকে পিটিয়ে হত্যা হয়েছেন। মৃত্য খালেক মৃধা (৩৫) একই এলাকার আঃ হাসেম’র ছেলে। ২৩শে জুন শনিবার এ হত্যার ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, পূর্ব গাবতলী গ্রামের নিজাম ফকিরের পুত্র হিরন ফকিরের বোনের সাথে পাশ্ববর্তী এলাকার রেজাউলের প্রেমের সম্পর্ক হয়। সেই সুবাধে রেজাউল শুক্রবার রাত ৯টার সময় হিরন ফকিরের বোনো সাথে দেখা করতে গেলে হিরনের ধাওয়া খেয়ে পালিয়ে যায়।

পথে শাহিন কে দেখতে পায় হিরন তখন তার বোনের সাথে দেখা করতে আশা সেই লোক শাহিন কে ভেবে মারধর করে তার বাড়ির সামনে অচেতন অবস্থায় ফেলে রেখে যার হিরন। শাহিনের বাবা খালেক মৃধা (৩৫) এঘটনার খবর পেয়ে ঢাকায় থাকে শনিবার সকালে বাড়ি এসে হিরনের কাছে জিজ্ঞাসা করতে গেলে হিরন তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে খালেক মৃধা(৩৫)কে পিটিয়ে আহত করে।

পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে বগীরহাট ক্লিনিকে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত্যু ঘেষেনা করেন।
এ দিকে ঘটনাকে উল্ট পথে নেওয়ার জন্য প্রধান আসামী হিরন ফকির (১৮), ও তার মা বাবা সহ ৬ জন নিজেরা শরীরের বিভিন্ন যায়গায় ব্লেড দিয়ে ক্ষত করে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন।

তালতলী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) পুলক চন্দ্র রায় জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি ও লাশ ময়না তদন্তের শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ১৪ জনকে আসামী করে হত্যা মামলার হয়েছে ও ঘটনার সাথে জড়িত ৬ জনকে আটক করা হয়েছে। আসাম দের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।