বেনাপোলে আমদানি পণ্যে বাধ্যতামূলক ৩৮ স্ক্যানিং চালুর নির্দেশ

বেনাপোল প্রতিনিধি: যশোরের বেনাপোল স্হল বন্দরে ভারতীয় পণ্য খালাসের আগে বাধ্যতামূলক ৩৮টি মোবাইল স্ক্যানিং চালুর ঘোষণা দিয়েছে কাস্টমস হাউজ।
বুধবার (২৭ জুন) বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার মোহাম্মদ বেলাল হোসাইন চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার স্বাক্ষরিত চিঠিটি বন্দর, কাস্টমস, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টসহ বাণিজ্য সংশিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরেও পাঠানো হয়েছে। স্ক্যানিংয়ের জন্য আমদানিকারকদের নির্দিষ্ট হারে অর্থও পরিশোধ করতে হবে।

কাস্টমস ও বন্দর সূত্রে জানা যায়, চিঠিতে উল্লেখিত পণ্যগুলোর চালানে বেশি অনিয়ম হয়। এছাড়াও এসব পণ্যে মিথ্যা ঘোষণায় শুল্ককর ফাঁকির ঘটনাও ঘটে। এসব পণ্যে মোবাইল স্ক্যানিং চালুর ফলে পণ্য পাচার বন্ধ হবে।

বেনাপোল বন্দরের আমদানি-রফতানি সমিতির সহ-সভাপতি আমিনুল হক বলেন, বেশির ভাগ শিল্প কারখানার জরুরি কাঁচামাল এ বন্দর দিয়ে আমদানি হয়। ব্যবসায়ীরাও চায় এসব পণ্য আমদানিতে স্ক্যানিং চালু হোক। কিন্তু তাদের আশঙ্কা এ নিয়মের ফলে বাণিজ্যে ধীরগতি নামতে পারে।