গৃহবধূকে দেহ ব্যবসায় নামানোর চাপ স্বামী-শাশুড়ীর বিরুদ্ধে অভিযোগ

শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে এক গৃহবধূকে দেহ ব্যবসায় নামানোর জন্য চাপ প্রয়োগের অভিযোগ উঠেছে স্বামী-শ্বাশুড়ীর বিরুদ্ধে। এ নিয়ে ওই গৃহবধূ স্বামী, শ্বাশুড়ি ও মামা শ্বশুরের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছেন।

জানা যায়, গত ৬মাস পূর্বে উপজেলার উত্তর মাজদিহি গ্রামের কন্যার (নাজমিন বেগম) সাথে শ্রীমঙ্গলের কালাপুর ইউনিয়নের সাকির মিয়ার পুত্র পাভেজ মিয়ার বিয়ে হয়। বিয়ের ৬ মাস যেতে না যেতেই স্বামী-শ্বাশুড়ী গৃহবধূকে প্রথমে যৌতুকের দাবীতে শারিরীক নির্যাতন শুরু করে।
গত ৯ জুলাই স্বামী পারভেজ মিয়া ও শ্বশুরী নূরজাহান বেগম জানায় তাকে দিয়ে দেহ ব্যবসা করাবে।

এ কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় আসামীরা গৃহবধূকে দেহ ব্যবসায় বাধ্য করাতে নির্যাতন করে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে দেয়। খবর পেয়ে আইন সহায়তা কেন্দ্র শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন বাচ্চু গৃহবধূকে দেখতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান এবং সবরকম আইনগত সহায়তার আশ্বাস দেন।

গত শনিবার আইন নসহায়তা কেন্দ্রের সহায়তায় গৃহবধূ শ্রীমঙ্গল থানায় স্বামী, শ্বাশুড়ী ও মামা শ্বশুরের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। রোববার গৃহবধূ সাংবাদিকদের বলেন, তার মাদকাসক্ত স্বামী শ্বাশুড়ি অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িত।

আমাকে সে পথে টানা জন্য তারা অনেক দিন থেকে শারীরিক ও মানসিক ভাবে নির্যাতন চালিয়ে আসছিল। জানতে চাইলে শ্রীমঙ্গল থানার এসআই হাফিজ জানান, শনিবার রাতেই আসামীদের ধরতে বাড়িতে তল্লাসী চালানো হয়েছে তবে পাওয়া যায়নি। এলাকার লোকজন জানায় তারা পুলিশ আসার সংবাদ পেয়ে পালিয়ে গেছে।