রাণীশংকৈল পবিত্রা কোরআন শরিফ ছিড়ে আগুনে পুরিয়ে ফেলার স্বামী – স্ত্রী বিরুদ্ধে এলাকাবাসীর

মজিবর রহমান শেখ ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ে রাণীশংকৈল উপজেলায় ঝাড়বাড়ী গ্রামে ইসমাইল নামে এক ব্যক্তি পবিত্র কোরআন শরিফ আগুনে পুড়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত মাস ৬ আগে ইসমাইল মেয়ে ইয়াসমিন তার ফুপাতো ভাইয়ের সাথে পালিয়ে বিয়ে করেন।

এ নিয়ে তাদের পরিবারে মাঝে কলহের সৃষ্টি হয়। গতকাল রাত ৮ টা ৩০ ইসমাইল বাসায় আসেন, তার স্ত্রী আকলেমা (৪০) কে বলে মেয়ের প্রেম, পালিয়ে বিয়ে করা সব কিছু তিনি জানেন আবার অস্বীকার করে আকলেমা, এক পর্যায়ে তাকে মারধর শব্দ শুনে এলাকাবাসী নুর হোসেনের স্ত্রী তার বাসায় আসেন দেখতে পান আকলেমা ঘর থেকে কোরআন শরীফ, এনে বলেন, আমি কোরআন শরিফ ছুঁয়ে বলছি আমি জানিনা।

ইসমাইল তার স্ত্রী আকলেমা হাত থেকে পবিত্র কোরআন শরিফ নিয়ে, বেশ কিছু অংশ ছিড়ে ফেলেন আর কিছু অংশ আগুনে পুড়িয়ে ফেলেন, ছেঁড়া কিছু অংশ তার বাড়ির ৫০ হাত দুরে উত্তরে গোপনে মাটিতে পুঁতে ফেলেন। এই নিয়ে বিষয়টি জানাজানি হলে বৃহস্পতিবার রাত ৮ দিকে ।

স্থানীয় মুসল্লিরা ও এলাকাবাসী ইসমাইল বাড়ি ঘেরাও করেন।এ পর্যায়ে ইসমাইল ভয়ে পালিয়ে যান।ঘটনায় মুসল্লিরা ও এলাকাবাসী তাকে গ্রেফতার করে শাস্তির দাবিতে জানান। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। রাণীশংকৈল থানা পুলিশ এসে মাটিতে পুঁতে রাখা কোরআান শরীফের কিছু ছেঁড়া অংশ উদ্ধার করেন।

ঐ এলাকার মেম্বার প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি তার বিরুদ্ধে যেন কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়। পরে মুঠো ফোনে রানীশংকৈল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, আব্দুল মান্নান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।