বাংলাদেশে প্রথমবারের মত ডিজিটাল ইন্স্যুরেন্স চালু করলো গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড
The news is by your side.

বাংলাদেশে প্রথমবারের মত ডিজিটাল ইন্স্যুরেন্স চালু করলো গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড

দেশের অন্যতম প্রধান নন-লাইফ বীমা কোম্পানী গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড বাংলাদেশে প্রথমবারের মত ডিজিটাল বীমা চালু করেছে। ১৩ই সেপ্টেম্বর ঢাকা ক্লাবে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠান ও সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এই যাত্রা শুরু হয়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন ইন্স্যুরেন্স ডেভেলপমেন্ট এন্ড রেগুলেটরি অথরিটি (আইডিআরএ) এর চেয়ারম্যান জনাব শফিকুর রহমান পাটোয়ারী এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স এসোসিয়েশন (বিআইএ) এর প্রেসিডেন্ট জনাব শেখ কবির হোসেন।

বিআইএ কর্মকর্তাদের পাশাপাশি আইডিআরএ এর সম্মানিত সদস্যবৃন্দ, পরিচালকগণ ও অন্যান্য সদস্যরাও উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। গ্রীন ডেলটা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড এর পক্ষ থেকে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং সিইও জনাব ফারজানা চৌধুরী, উপদেষ্টা এবং প্রতিষ্ঠাকালীন ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব নাসির এ চৌধুরী এবং অন্যান্য উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণ উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

নন-লাইফ বীমার ক্ষেত্রে গ্রীন ডেল্টা ইনস্যুরেন্স বাংলাদেশের অন্যতম এক শীর্ষস্থানীয় বীমা কোম্পানি যারা ট্রিপল এ রেটিং অর্জন করেছে এবং আইএফসি, বিশ্বব্যাংক যার বিনিয়োগের অংশীদার। বাজারের নেতৃস্থানীয় কোম্পানি হিসেবে এই আধুনিক যুগের সকল চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য বিভিন্ন উদ্ভাবনী কর্মকান্ডের মাধ্যমে গ্রীন ডেল্টা ইনস্যুরেন্স তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করে।

বাংলাদেশ সরকারের অন্যতম এক উদ্যোগ ডিজিটাল বাংলাদেশ কার্যক্রমের সহযোগিতার লক্ষ্যে গ্রীন ডেলটা ইতোমধ্যে সর্বোৎকৃষ্ট আইটি ব্যবস্থাপনা দিয়ে তাদের ব্যবসার মডেলকে যুগোপযোগী করে সাজিয়েছে এবং বীমা শিল্পকে ডিজিটাল করার লক্ষ্যে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছে
বাংলাদেশে এখন ৮ কোটি ইন্টারনেট এবং ১ কোটি স্মার্টফোন ব্যবহারকারী রয়েছে, আর তাই আগামীতে বাংলাদেশে দ্রুত ফিনটেক এবং ইন্স্যুয়রটেক এর পরিমাণ উল্যেখযোগ্য হারে বেড়ে যাবে। আর তাই এখন সময় হয়েছে বাংলাদেশের ইনস্যুরেন্স শিল্পকে ডিজিটালাইজ করার যাতে আমাদের গ্রাহকেরা আরো উন্নত সেবা লাভ করতে পারে।

গতবছর গ্রীন ডেল্টা বাংলাদেশ তথ্য ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের (আইসিটি) সাথে এক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করে, যার উদ্দেশ্য ছিল বীমা গ্রহণের সবার যে সুযোগ রয়েছে সে বিষটি তুলে ধরা এবং প্রযুক্তির মাধ্যমে এই বিষয়ে সবাইকে সচেতন করে তোলা। এই সমঝোতা স্মারক এ ডিজিটাল ইনস্যুরেন্সের বিষয়টিকে দারুণ ভাবে সমর্থন করা হয়েছে। একই সাথে জাতীয় সুরক্ষা বিভাগ (জাতীয় সাহায্য কেন্দ্র #৯৯৯) নিবেদিতার সাথে যুক্ত হয়েছে। নিবেদিতা হচ্ছে নারীদের জন্য নিবেদিত এক বীমা প্রকল্প আর এই প্রকল্প মোবাইলে এক প্যানিক বাটন যুক্ত করেছে, নারীদের সুরক্ষার জন্য। নিবেদিতার উদ্যোক্তা হচ্ছে গ্রীন ডেল্টা ইনস্যুরেন্স।

ইতোমধ্যে গ্রীন ডেল্টা বীমার দাবী পরিশোধের ক্ষেত্রে এক শক্তিশালী ও বিশ্বস্ত নামে পরিণত হয়েছে। একই সাথে এখন গ্রীন ডেল্টার ইনস্যুরেন্স পলিসি অনলাইন থেকে কেনা যাবে, যা একজন গ্রাহকের সময়, অর্থ এবং শক্তি তিনটিই বাঁচাবে। বর্তমানে গ্রাহকেরা মোটর ইন্স্যুরেন্স সেবা, ট্রাভেল ইন্স্যুরেন্স সেবা, নিবেদিতা এবং পারসোনাল এক্সিডেন্ট পলিসি ডিজিটাল মাধ্যমে গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানীর ওয়েবসাইট (িি.িমৎববহ-ফবষঃধ.পড়স) থেকে গ্রহণ করতে পারছেন। অন্যান্য সেবাসমূহও দ্রুত ডিজিটাল মাধ্যমের আওতাভুক্ত করা হবে। বর্তমানে গ্রীন ডেলটা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি এবং আই-পে এর সম্মিলিত উদ্যোগে একটি মানিব্যাক ক্যাম্পেইন চলছে। যেসকল গ্রাহকেরা আই-পে এর মাধ্যমে বীমা সুবিধা গ্রহণ করবেন তারা ১৫% মানিব্যাক পাবেন।