চকরিয়ায় ফুটবল খেলার বিরোধ নিয়ে শিশুর হাতে শিশু নিহত

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি: কক্সবাজারের চকরিয়ায় ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে ফখর উদ্দিন (১০) নামের তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ুয়া এক ছাত্র তার অপর সহপাঠী হাতে নিহত হয়েছেন। নিহত ছাত্রকে অ-কোষ চেপে ধরে তার ফুটবল খেলার সহপাঠী সাইফুল ইসলাম তাকে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ ঘটনার সংবাদ পেয়ে ওসির নেতৃত্বে সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে।

ওইদিন বিকাল ৫টার দিকে উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মাইজপাড়াস্থ লাটের ঘর আবুল কালামের বালির ডেইল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত শিক্ষার্থী ফখর উদ্দিন চকরিয়ার সীমান্ত লামা উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের বাঘাইছড়ি ৩নং ওয়ার্ডের পশ্চিম মালুম্মা এলাকার আমসাদ আলীর ছেলে ও মালুম্মা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র। এ ঘটনায় সাইফুলের বাবা নুরুল আমিন (৪৫) পুলিশ আটক করেছে।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শী ভাষ্যমতে পুলিশ জানান, সোমবার বিকালের দিকে চকরিয়া ও লামার সীমান্ত এলাকা ডুলাহাজারা ইউনিয়নের মাইজপাড়াস্থ লাটের ঘর আবুল কালামের বালির ডেইল নদীর চরে স্থানীয় একদল শিশু ফুটবল খেলতে যায়। খেলার এক পর্যায়ে তুচ্ছ বিষয়ে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে ফখর উদ্দিন ও সাইফুল নামের দুই সহপাঠীর মধ্যে হাতাহাতি হয়। এসময় উত্তেজিত ও ক্ষিপ্ত হয়ে ডুলাহাজারা পূর্ব মাইজপাড়া এলাকার নুরুল আমিনের ছেলে সাইফুল তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ুয়া ক্ষুদে ফুটবলার ফখর উদ্দিনকে লাথি মেরে অ-কোষ চেপে ধরে।

এক পর্যায়ে অন্ডকোষ চেপে ধরায় গুরুতর আঘাত পেলে পরিবারের সদস্য ও স্থানীরা ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে মালুমঘাট মেমোরিয়াল খ্রীস্টান হাসপাতালে নেয়া গেলে কর্তব্যরত চিকিসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। ঘটনার পর পরই ফুটবল খেলার মাঠ থেকে দৌড়ে পালিয়ে যান সাইফুল। শিশু নিহতের ঘটনার সংবাদ পেয়ে ওসির নেতৃত্বে পুলিশ রাত সাড়ে আটটার দিকে লাশ উদ্ধার করে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, এক শিশু ফুটবল খেলোয়াড নিহত হওয়ার খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে রাতে নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক সুরুতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে সকালে লাশ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত সাইফুলের পিতাকে পুলিশ আটক করেছে। তবে পরিবারের পক্ষথেকে মামলা প্রক্রিয়াধীন চলছে বলে তিনি জানান।