পঞ্চগড়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে সরকারী গাছ কাটার অভিযোগ

শেখ সম্রাট হোসাইন, পঞ্চগড়: পঞ্চগড় সদর উপজেলার কামাত কাজলদিঘী ইউনিয়নের শিপাহী পাড়া এলাকায় সরকারী রাস্তার ইউক্যালিপটাস ৮ টি গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে। ঐ এলাকার শ্রী অনিল চন্দ্র এর বিরুদ্ধে।

স্থানীয়রা জানান, সিপাহী পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় হতে পশ্চিম ডাঙ্গা পাড়া কবরস্থান সংলগ্ন সরকারী রাস্তার গাছ ইউপি সদস্যের ভাই এর প্রভাব খাটিয়ে ঐ শিক্ষক অনিল চন্দ্র গাছ গুলো কাটলে আমরা বাঁধা দেই।এর আগেও ইউপি সদস্য শ্রী দেবশ্বর একই রাস্তার ২৮ টি গাছ কেটেছে।তবে ইউপি সদস্য সবকিছ অস্বিকার করে বলেন, আমি ছোট ছোট ৭ টি গাছ কেটেছি।

পরে ঘটনা জানাজানি হলে ঐ দিন (২৭ অক্টোবর) বিকালে গাছগুলো স্থানীয় ভূমি অফিসের কর্মকর্তা তহসিলদার জাহাঙ্গীর আলম উদ্ধার করে ইউনিয়ন পরিষদে জমা দেয়। এ দিকে গাছ কাটার বিষয়ে শিক্ষক শ্রী অনিল চন্দ্র বলেন, ঐ রাস্তায় গাছ গুলো আমি রোপন করেছি তাই কেটেছি।

এ বিষয়ে কামাত কাজলদিঘী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোজাহার আলী জানান, গাছগুলো তহসিলদার জব্দ করে ইউনিয়ন পরিষদে জমা দিয়েছে। এ ব্যাপারে পঞ্চগড় সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কামরুজ্জামান সরকারী রাস্তার গাছ কেউ কেটে থাকলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।