প্রধানমন্ত্রীর সংলাপে বসার সম্মতিকে স্বাগত জানিয়েছে বাংলাদেশ ন্যাপ

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপে বসতে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সম্মতির ঘটনাকে দেশের রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি হিসেবে আখ্যায়িত করে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানান। মঙ্গলবার গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে দলের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এ মন্তব্য করেন।

তারা বলেন, এর মধ্য দিয়ে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে চলমান রাজনীতিতে যে ধরনের উদ্বেগ ও উকণ্ঠা রয়েছে, তা দূরীকরণ এবং একটি বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের পথ সুগম হবে বলে সমগ্র জাতির প্রত্যাশা।

নেতৃদ্বয় এই সংলাপ যেন অর্থবহ হয়, সেই আহ্বান জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশ ন্যাপ সকল সময়ই মনে করে সংলাপের মধ্যদিয়ে অনেক সমস্যার সমাধারণ করা সম্ভব। এই কারণে গত ৬বছর যাবতই বিভিন্ন সময় দলের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীর নিকট সংলাপের দাবী জানানো হয়। দেরীতে হলেও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেভাবে সংলাপের দরজা কুলে দিয়েছেন তাতে আমরা বিশ্বাস করতে চাই সংলাপের সফলতার মাধ্যমেই আগামী দিনে দেশের অনেক সমস্যারই সমাধারন হবে।

তারা বলেন, সংলাপ শুধুমাত্র একটি জোটের সাথে সীমাবদ্ধ না রেখে এর পরিধি বাড়ানো উচিত। কারণ একটি জোট কোনো ভাবেই গোটা জাতির প্রতিনিধিত্ব করে না। দেশের সকল নিবন্ধিত দলগুলোর সাথেও সংলাপে অংশগ্রহন করা প্রয়োজন, যা সংলাপকে শুধু অর্থবহ ও ফলপ্রসূই করবে না বরং একে শতভাগ জাতীয় রূপ দেবে-সর্বজন গ্রহণযোগ্যতা নিশ্চিত করবে।