সিলেট নির্বাচনী প্রচারণায় মিসবাহ সিরাজ

আবুল হোসেন, সিলেট: অনেকদিন ধরেই আগামী নির্বাচনে সিলেট-১ ও সিলেট-৩ আসনে প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছার কথা জানিয়ে আসছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ। এবার আনুষ্ঠানিক প্রচারণায় নেমেছেন তিনি। ইতোমধ্যে নৌকা মার্কায় ভোট চেয়ে নগরীতে পোস্টার সাঁটিয়েছেন মিসবাহ সিরাজ। ‘সিলেট-১ ও সিলেট আসনের সর্বস্তরের জনগণের’ নামে সাঁটানো এসব পোস্টারে মিসবাহ ছবি জুড়ে দিয়ে নৌকায় ভোট চাওয়া হয়েছে। নগরীর বিভিন্ন দেওয়ালে শোভা পাচ্ছে এসব পোস্টার।

গতকাল মঙ্গলবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে গণসংযোগে নামছেন তিনি। দুপুরে শাহজালাল দরগাহ (র.) প্রাঙ্গণ থেকে নৌকা মার্কার সমর্থনে লিফলেট বিতরণ শুরু করবেন মিসবাহ সিরাজ। এরমাধ্যমে সিলেটে আগামী নির্বাচনকে ঘিরে প্রথম কোনো মনোনয়ন প্রত্যাশী আনুষ্ঠানিক প্রচারণায় নামবেন।

এ ব্যাপারে এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেন, গত ১০ বছর শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকার দেশে যে ব্যাপক উন্নয়ন করেছে তা জনগণকে জানাতে ও আগামী নির্বাচনে নৌকার পক্ষে ভোট চাইতে আমি মঙ্গলবার থেকে গণসংযোগে নামছি। নিজের প্রার্থিতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি ছাত্রজীবন থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করে আসছি। তিন মেয়াদে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছি। এবার আমি সিলেটের দুটি আসনে দলীয় মনোনয়ন চেয়েছি।

দলীয় প্রধান আমাকে যেখানে মনোনীত করবেন সেই আসন থেকে আমি নির্বাচন করবো। সিলেট-১ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত আগামী নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। এই আসনে মুহিতের অনুজ সাবেক রাষ্ট্রদূত ড. একে আবুল মোমেন এই আসনে প্রার্থী হতে মাঠে তৎপর রয়েছেন। মোমেন আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু না করলেও তাঁর সমর্থনে নগরীর বিভিন্ন স্থানে বিলবোর্ড ফেস্টুন শোভা পাচ্ছে।

এছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. ফরাসউদ্দিন এবং সাবেক নির্বাচন কমিশনার ছহুল হোসেনের নামও এই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে আলোচিত হচ্ছে। তবে মাঠে এখনও তাদের কোনো তপরতা নেই। এদিকে, সিলেট-৩ আসনে আওয়ামী লীগের বর্তমান সাংসদ মাহমুদুস সামাদ চৌধুরী কয়েস আগামী নির্বাচনেও দলীয় মনোনয়ন পেতে তপর রয়েছে। এছাড়া যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ নেতা হাবিবুর রহমান হাবিব এবং দক্ষিণ সুরমা উপজেলা চেয়ারম্যান আবু জাহিদও এ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী।