জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সংলাপ ব্যর্থ হয়েছে ইসলামপুরে জনসভায় হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ

লিয়াকত হোসাইন লায়ন,জামালপুর প্রতিনিধিঃ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সংলাপ ব্যর্থ হয়েছে, ঐক্য ফ্রন্ট সরকারের সাথে সংলাপে বসে একটা লম্বা লিস্ট দিয়েছে। সংবিধানের বাইরে যাওয়া সম্ভব নয় সরকারের। আমরাও সংলাপে যাবো। তবে লম্বা লিস্ট দেইনি। কোনো দাবি করবো না। দাবি একটাই আমাদের কয়টা আসন দিবেন। আমাদের কোন দাবী দাওয়া নেই, কোন দাবী নিয়েও সংলাপে যাবো না, শুধু জাতীয় পার্টির আসন বৃদ্ধি করতেই সংলাপে যাব।

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার গুঠাইল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা জাতীয় পার্টি আয়োজিত শনিবার বিকালে আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে লাঙল প্রতীকের প্রচারণা জনসভায় জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। এছাড়াও নির্বাচন সর্ম্পকে তিনি আরো বলেন, সামনে এখন দুটা দল আওয়ামীলীগ আর জাতীয় পার্টি। জাতীয় পার্টি যদি শক্তি শালী হই, সংগঠিত হই, তাহলে আমরা এবার ক্ষমতায় যেতে পারবো আমার বিশ্বাস ইনশাহআল্লাহ।

এসময় খালেদা জিয়ায় প্রতি ইঙ্গিত করে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদ আরো বলেছেন, আমাকে জেলে রাখলেন বিনা কারণে বিনা দোষে,আমি ছয় বছর জেলে ছিলাম, আপনি এখন কোথায়, আপনি আর কোন দিন জেল থেকে বের হতে পারবেন না। কারণ আপনি কোর্টের দ্বারা দোষি হয়েছেন, আপনার ছেলে আর কোন দিন দেশে আসতে পারবে না। তিনি আরো বলেন, জোর করে সীল মেরে নির্বাচিত হতে চাই না, কাউকে সীল মারতে দিবও না। এ সময় প্রতিটি নেতাকর্মীদের অতন্ত্র প্রহরী হিসাবে প্রতিটি কেন্দ্রে পাহারা দেওয়া আহ্বান জানান।

আজ দেশের মানুষ শংকায় থাকে,যখন তখন খুন গুম হয়ে যাচ্ছে,মানুষের নামে কথায় কথায় মিথ্যা মামলা হচ্ছে। জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় এলে এসব পরোপুরি বন্ধ হবে। বাংলাদেশের সু-দিন ফিরে আসবে। ইসলামপুর উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মোস্তফা আল মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জনসভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে জাতীয় পার্টির মহাসচিব রহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি এম এ সাত্তার, ফয়সাল চিশতি, সফর সঙ্গী আজম খাঁ, কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি নুর ইসলাম নুর, কেন্দ্রীয় সদস্য সাফিউল আলমসহ জামালপুর জেলা ও উপজেলার নেতৃবৃন্দরা বক্তব্য রাখেন।