নবীগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক সড়কের সরকারি গাছ কর্তন

হবিগঞ্জ সংবাদদাতাঃ নবীগঞ্জ উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি আলী আহমদ মুসা কর্তৃক এলজিইডির রাস্তা থেকে সরকারী বিভিন্ন প্রজাতির ছোট বড় প্রায় ১০টি গাছ কর্তন করা হয়েছে। যার বাজার মুল্য অন্তত ২ লক্ষাধিক টাকা হবে বলে স্থানীয় ভাবে ধারনা করছেন অনেকে। এতে করে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য বিনষ্ট এবং সরকার বাহাদুরের সম্পদ নষ্ট হচ্ছে। এ ঘটনায় এলাকায় চা ল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

শুক্রবার বিকেল সরেজমিনে গিয়ে গাছ কাটার চিত্র দেখা যায়। এ দিকে ওই দিনই সন্ধার পর কর্তনকৃত গাছ ট্রাকটর যোগে আউশকান্দি বাজারে রাস্তার সামনে নিয়ে আসলে স্থানীয় লোকজন আটক করেন। খবর পেয়ে নবীগঞ্জ এলজিইডির লোকজন উপস্থিত হয়ে কাটা গাছগুলো তাদের জিম্মায় নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির পরিচালক শফিউল আলম হেলাল, স্থানীয় ইউপি সদস্য খালেদ আহমদ জজ, শ্রমিক নেতা মাইদুল মিয়াসহ আরো অনেকে।

জানা যায়, গত ১সাপ্তাহ যাবত নবীগঞ্জ উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নের বাংলাবাজার-গোপলার বাজার সড়কের সমরগাঁও গ্রামের নিকটে নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে একাধিক শ্রমিক দিয়ে নির্বিচারে গাছ কর্তন করছেন কুর্শি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি আলী আহমেদ মুসা। সচেতন মহলের লোকজন জানান, দায়িত্বশীল ব্যক্তি হয়ে এমন ঘটনা খুবই নেক্কারজনক। এ ব্যাপারে প্রয়োজনী ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি দাবী জানিয়েছেন সচেতন মহলের অনেকে।

এ ব্যাপারে কুর্শি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলী আহমদ মুসার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, কয়েকটি গ্রামের বিদ্যুৎ এর আলো পৌঁছে দেয়ার জন্য সড়কের পাশে গাছের ডালপালা খাটা হয়েছে। জনস্বার্থের কাজের জন্যই এ কাজ করা হয়েছে তবে কোনো গাছ কাটা হয়নি। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন হাসানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমরা খবর পেয়েছি। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।