চান্দিনায় আওয়ামীলীগ অফিসে ককটেল বিস্ফোরণ; ৯টি ককটেল উদ্ধার

আকিবুল ইসলাম হারেছ, চান্দিনা প্রতিনিধিঃ চান্দিনা উপজেলার মাধাইয়া ইউনিয়নের নাওতলায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সংলগ্ন আওয়ামীলীগের নির্বাচনী অফিস লক্ষ করে ককটেল ছুড়ে দুর্বৃত্তরা। এসময় দুটি ককটেল বিস্ফোরিত হয়। বিস্ফোরণের আগে থেকেই দলীয় কার্যালয়ে একটি নির্বাচনী সভা চলছিল। বিস্ফোরণে সভায় অংশগ্রহণকারী পাঁচজন নেতাকর্মী আহত হয়। শনিবার (২২ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ওই ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ৯টি তাজা ককটেল উদ্ধার করে চান্দিনা থানা পুলিশ।

এদিকে ওই ঘটনার পর পর মাধাইয়া-রহিমানগর সড়কে মাধাইয়া কাঠ পট্টি এলাকায় একটি নৌকা প্রতীকে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। পৃথক দুটি ঘটনা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলীয় জোটের ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী ড. রেদোয়ান আহমেদ এর পরিকল্পনায় করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেন আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ।

তাৎক্ষণিক এক সংবাদ সম্মেলনে ওই অভিযোগ তুলেন তারা। ককটেল বিস্ফোরণে আহত হয় ওই ইউনিয়নের নাওতলা গ্রামের মৃত আবদুর রশিদ এর ছেলে উপজেলা তাঁতীলীগ নেতা মো. আবদুল কাদের (৩৫), যুবলীগ নেতা ওযায়ের আহমদ (২২), ইব্রাহীম খলিল (১৮), রুহুল আমিন (৪০), মোসলেম (৬০)। আহতদের চান্দিনার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী উপজেলা তাঁতীলীগ আহ্বায়ক মো. আবদুল হালিম মেম্বার জানান, ‘আমাদের অফিসে নির্বাচন উপলক্ষে পূর্ব নির্ধারিত একটি দলীয় সভা চলছিল। ওই সভায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী সাবেক ডেপুটি স্পিকার অধ্যাপক মো. আলী আশরাফ এর ছেলে এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি ও জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মুনতাকিম আশরাফ টিটু সহ উপজেলার শীর্ষ নেতৃবৃন্দের আসার কথা ছিল। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ৩টি মাইক্রোবাস যোগে কতিপয় লোকজন এসে ধানের শীষের স্লোগান দিয়ে কয়েকটি ককটেল ছুড়ে মারে। এসময় বিকট শব্দে নেতাকর্মীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। আমাদের ৫ জন দলীয় কর্মী আহত হয়। পরে আমরা তাদের ধাওয়া করলে একটি ব্যাগ ভর্তি ককটেল ছুড়ে মেরে পালিয়ে যায়। ঘটনাক্রমে ব্যাগে থাকা ককটেলগুলো বিস্ফোরিত হয় নি।’

অপরদিকে ঘটনার পর নাওতলায় আওয়ামীলীগের নির্বাচনী অফিসে তাৎক্ষণিক সংবাদ সম্মেলন করে আওয়ামীলীগ। সংবাদ সম্মেলনে ওই ককটেল বিস্ফোরণের তীব্র নিন্দা জানিয়ে সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করেন তারা। সম্মেলনে বক্তৃতা করেন- এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি ও জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মুনতাকিম আশরাফ টিটু, উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা ও মাধাইয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. অহিদ উল্লাহ্। এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি আলাউদ্দিন আল আজাদ মমতাজ, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা হাজী মো. শাহআলম প্রমুখ।

এ ব্যাপারে চান্দিনা থানার অফিসার ইন-চার্জ মোহাম্মদ আবুল ফয়সল জানান, ‘খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। বিস্ফোরিত দুটি ককটেলের আলামত এবং অবিস্ফোরিত ৯টি ককটেল উদ্ধার করি। ঘটনার তদন্ত চলছে। আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’