শরীয়তপুরে তিন ভাইকে কুপিয়ে জখম

এস.এম. স্বাধীন, শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ শরীয়তপুরে ফসলি জমিতে জোরপুর্বক মাছের ঘের করতে বাধা দেয়ায় প্রতিপক্ষের লোকজন দোকানের ভিতর হামলা চালিয়ে তিন ভাইকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর জখম এবং মোটরসাইকেল সহ দোকানের মালামাল লুটপাট করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (২৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার সময় সদর উপজেলার আংগারিয়া বাজারে এই হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় আহতরা হলেন, আংগারিয়া ইউনিয়নের হাজতখোলা গ্রামের মৃত আব্দুর রব ছৈয়ালের ছেলে ও আংগারিয়া বাজারের ব্যবসায়ী মনিরুজ্জামান ছৈয়াল (৪২), ওহিদুজ্জামান রুবেল ছৈয়াল (৩৬) ও মোক্তার ছৈয়াল (৩২)। এদেরকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতদের ভাই ইমাম উদ্দিন জানান, আংগারিয়া ইউনিয়নের সংরক্ষিত ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার সুফিয়া বেগমের স্বামী মাসুম সরদার হাজতখোলা গ্রামে জোরপূর্বক ফসলী জমি লিজ নিয়ে মাছের ঘের করতে চাইলে মনিরুজ্জামান ছৈয়াল ও তার ভাইরাসহ জমির মালিক পক্ষ বাধা দেয় এবং এসপি অফিসে অভিযোগ দায়ের করে। পরে এসপি অফিস থেকে উভয় পক্ষকে ডেকে ফসলি জমিতে মাছের ঘের না করার জন্য নির্দেশ দেন। এর জের ধরে মাসুম সরদার লোকজন নিয়ে আংগারিয়া বাজারের ব্যাবসায়ী তিন ভাই মনিরুজ্জামান ছৈয়াল, ওহিদুজ্জামান রুবেল ছৈয়াল ও মোক্তার ছৈয়ালকে দোকানের ভিতর ঢুকে হামলা চালিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। তাদেরকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। হামলাকারীরা মনিরুজ্জামান ছৈয়ালের মোটরসাইকেল সহ তাদের দুটি দোকানের মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

অভিযোগ অস্বীকার করে মাসুম সরদার বলেন, আমরা কেউ তাদের ওপর হামলা করিনি। ওরা জামায়াত শিবিরের রাজনীতি করে। ওদের দোকানের সামনে দিয়ে একটি নৌকার মিছিল যাচ্ছিলো। এ সময় দোকানের ভিতর থেকে মিছিলকারীদের ওপর চলা ফিকে মারা হয়।পরে মিছিলকারীরা তাদের ওপর হামলা করে।

পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন, ফসলি জমিতে মাছের ঘের করা নিয়ে দু’পক্ষের দ্বন্দ্বের জের ধরে তিন ভাইয়ের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে। হামলার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।