গুরুদাসপুরে কৃষি জমিতে পুকুর খনন বন্ধ

নাজমুল হাসান নাহিদ, গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধিঃ নাটোরের গুরুদাসপুরে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশের হস্তক্ষেপে কৃষি জমিতে পুকুর খনন বন্ধ হয়েছে।

বেপোরায়া ভাবে কৃষিজমিতে পুকুর খনন করায় গত ১৫-০১-১৯ তারিখে নাটোর জেলাপ্রশাসকের হস্তক্ষেপে একটি মেশিন ভেঙ্গে দেওয়া হয় এবং দুইপুকুর মালিককে জরিমানা করা হয় ও মামলা দেওয়া হয়। তারপর থেকে ইউপজেলা প্রশাসন ও গুরুদাসপুর থানা পুলিশ পুকুর খনন বন্ধে নিয়মিত অভিযান চালিয়ে সক্ষম হয়েছে।

গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মনির হোসেন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা কেউ যেন কৃষি জমিতে পুকুর খনন করতে না পারে। সেই নির্দেশনার আলোকে এবং জেলাপ্রশাসক স্যারের নির্দেশনায় আমরা গুরুদাসপুর উপজেলায় কোথাও কোন ইউনিয়নে কোন জায়গায় কোন দুর্বত্ত্ব বা কোন ব্যাক্তি যেন তিন ফসলি বা দুই ফসলি জমি নষ্ট করে পুকুর কাটতে না পারে সে ব্যাপারে আমরা সদা তৎপর আমরা অত্যন্ত সজাগ এবং সারা উপজেলায় আমরা আমাদের ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন পরিষদের সচিব, তহসিলদার, গ্রাম পুলিশ, পাশাপাশি আমাদের গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো. সেলিম রেজার যে কর্মকর্তাবৃন্দ আছেন পুলিশ কর্মকর্তা বৃন্দ আপামর জনসাধারণ সবাই মিলে আমরা এই পুকুর কাটা বন্ধ করেছি এবং পুকুর কাটা কোথাও যেন না হয় সে ব্যাপারে আমরা সদা তৎপর।

আমি আশা করি গুরুদাসপুরে বিশেষ করে চাপিলার জনসাধারণ সচেতন মহল সবাই এই মহতি উদ্যোগে আমাদেরকে সহযোগিতা করবেন, অবৈধভাবে কেউ যদি পুকুর খনন করে তাহলে আমরা যেন তাকে আইনের আওতায় এনে সাজা দিতে পারি এবং সবাইকে সতর্ক করছি যে, যারা ভেকু মেশিন নিয়ে অবৈধ ভাবে পুকুর খনন করবে সে সকল ভেকু মেশিন অবৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে।

এ জন্যে আমি সর্ব সাধারণ সবাইকে আহ্বান করছি, আসুন আমরা সবাই মিলে আমাদের কৃষি জমি রক্ষা করি, আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে আমরা যেন একটা সোনার বাংলা উপহার দিতে পারি, আমরা যেন আমাদের পরিবেশকে রক্ষা করতে পারি। আমাদের কৃষি উৎপাদন যেন ব্যহত না হয় এ ব্যাপারে আমরা সবাই এক সাথে কাজকরবো ইনশাল্লাহ।

এ ব্যাপারে গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সেলিম রেজা বলেন, এই উপজেলায় অবৈধ ভাবে কেউ যদি কৃষি জমিতে পুকুর খনন করে তাহলে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে এ ব্যাপারে আমরা সজাগ।