জন্মদিনের বরাদ্দকৃত অর্থ অনাথ আশ্রমে দান করলেন অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী

দহেন ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: গত ১৮ জুন ২০১৮খ্রী. দশম জন্মদিন সাড়ম্বরে উদযাপন না করে বরাদ্দকৃত অর্থ দিয়ে অর্থনৈতিক ভাবে সুযোগ বঞ্চিত শিশুদের জন্য পড়াশোনার সামগ্রী কিনে সহযোগিতা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সেদিন ঠিক করা হয় সামনের বার বাংলাদেশে যাওয়ার সময় কোন একটি স্কুল বা আশ্রমে সেটা করা হবে।

নাইরৌং এর এই সিদ্ধান্তের জন্য আমরা অনেক অনেক মুগ্ধ ও গর্বিত। বিয়ারৗং আশ্রমের মহান কার্যক্রমে মুগ্ধ হয়ে পরিবার থেকে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় ব্যতিক্রমী একটি উদ্যোগ।

১৮ জানুয়ারী ২০১৯খ্রীঃ শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩টায় অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী কৃতি শিক্ষার্থী নাইরৌং ত্রিপুরা তাঁর ১০ম জন্মদিন উপলক্ষে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলাধীন ০৯ মাইল বিয়ারৗং অনাথ আশ্রম হল রুমে সুযোগ বঞ্চিত শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী ও কম্পিউটার উপহার প্রদান করেন।

এ সময় নাইরৌং এর ভবিষ্যত সাফল্যের কামনা করে আর্শীবাদ দিয়ে বক্তব্য দেন বিয়ারৗং অনাথ আশ্রমের সাধারণ সম্পাদক মাচাং চন্দ্র কিশোর ত্রিপুরা, স্থানীয় কার্বারী চন্দ্র কিরণ ত্রিপুরা, স্থানীয় মেম্বার মাচাং গণেশ চন্দ্র ত্রিপুরা, জাবারাং কল্যাণ সমিতির নির্বাহী পরিচালক মাচাং মথুরা বিকাশ ত্রিপুরা, বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ খাগড়াছড়ি সদর শাখার সভাপতি মাচাং কাজল বরন ত্রিপুরা, সাধারণ সম্পাদক মাচাং বিপ্লব কান্তি ত্রিপুরা, রামকৃষ্ণ সেবাশ্রমের সাধারণ সম্পাদক মাচাং জয় প্রকাশ ত্রিপুরা, ত্রিপুরা স্টুডেন্টস্ ফোরাম, বাংলাদেশ খাগড়াছড়ি সদর শাখার সভাপতি দহেন বিকাশ ত্রিপুরা প্রমুখ।

নাইরৌং ত্রিপুরার বাবা অভিলাষ ত্রিপুরা তার ফেসবুকে বলেন, মাতৃভূমি থেকে প্রায় নয় হাজার কিলোমিটার দূরে থাকলেও সুযোগ পেলেই চেষ্টা করি নিজের শিকড়ের সাথে কল্পনাতে হলেও পরিচিত করানোর। সময় পেলেই ও প্রসঙ্গ আসলেই প্রতিকূলতার বিপরীতে ছোটবেলার নিজের জীবন সংগ্রামের দিনগুলোর কথা শেয়ার করি। স্বপ্ন দেখি, একদিন সুযোগবঞ্চিত মানুষদের পাশে দাঁড়াতে চেষ্টা করবে।

এ সময় সময় উপস্থিত ছিলেন নাইরৌং ত্রিপুরার মা রাজেশ্বরী রোয়াজা, নাইরৌং এর নানী ইরানিকা রোয়াজা সহ এলাকার গণমান্য ব্যক্তিবর্গসহ তরুন সমাজের নেতৃবৃন্দ।

নাইরৌং ত্রিপুরা’র সংক্ষিপ্ত ইতিহাস: ৪র্থ শ্রেণীর সকল বিষয়ে পুরো স্কুলে সর্বোচ্চ নাম্বার পেয়ে সামনে মাস থেকে ৫ম শ্রেণী শুরু করবে। পুরো রাজ্যের অন্যতম শীর্ষ বয়স ভিত্তিক সাঁতারু। এ বছরেই বিশটির অধিক মেডেল অর্জন। দৌড় প্রতিযোগিতায় বিভাগীয় পর্যায়ে অংশগ্রহণ; বাস্কেটবলেও রাজ্য পর্যায়ে অংশগ্রহণ। তাছাড়া রাজ্য পর্যায়ে পর্যন্ত একাধিক সংগীত উৎসবে অংশগ্রহণ।

জন্ম: ১৮ জুন ২০০৮, পিতা: অভিলাস ত্রিপুরা ও মাতা রাজেশ্বরী রোয়াজা।
বর্তমান ঠিকানা: Forde, Canberra, Australia.
স্থায়ী ঠিকানা: হাদুক পাড়া, খাগড়াপুর, খাগড়াছড়ি সদর, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা।

জন্মদিনের বরাদ্দকৃত অর্থ অনাথ আশ্রমে দান করলেন অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী

দহেন ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: গত ১৮ জুন ২০১৮খ্রী. দশম জন্মদিন সাড়ম্বরে উদযাপন না করে বরাদ্দকৃত অর্থ দিয়ে অর্থনৈতিক ভাবে সুযোগ বঞ্চিত শিশুদের জন্য পড়াশোনার সামগ্রী কিনে সহযোগিতা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সেদিন ঠিক করা হয় সামনের বার বাংলাদেশে যাওয়ার সময় কোন একটি স্কুল বা আশ্রমে সেটা করা হবে।

নাইরৌং এর এই সিদ্ধান্তের জন্য আমরা অনেক অনেক মুগ্ধ ও গর্বিত। বিয়ারৗং আশ্রমের মহান কার্যক্রমে মুগ্ধ হয়ে পরিবার থেকে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় ব্যতিক্রমী একটি উদ্যোগ।

১৮ জানুয়ারী ২০১৯খ্রীঃ শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩টায় অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী কৃতি শিক্ষার্থী নাইরৌং ত্রিপুরা তাঁর ১০ম জন্মদিন উপলক্ষে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলাধীন ০৯ মাইল বিয়ারৗং অনাথ আশ্রম হল রুমে সুযোগ বঞ্চিত শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী ও কম্পিউটার উপহার প্রদান করেন।

এ সময় নাইরৌং এর ভবিষ্যত সাফল্যের কামনা করে আর্শীবাদ দিয়ে বক্তব্য দেন বিয়ারৗং অনাথ আশ্রমের সাধারণ সম্পাদক মাচাং চন্দ্র কিশোর ত্রিপুরা, স্থানীয় কার্বারী চন্দ্র কিরণ ত্রিপুরা, স্থানীয় মেম্বার মাচাং গণেশ চন্দ্র ত্রিপুরা, জাবারাং কল্যাণ সমিতির নির্বাহী পরিচালক মাচাং মথুরা বিকাশ ত্রিপুরা, বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ খাগড়াছড়ি সদর শাখার সভাপতি মাচাং কাজল বরন ত্রিপুরা, সাধারণ সম্পাদক মাচাং বিপ্লব কান্তি ত্রিপুরা, রামকৃষ্ণ সেবাশ্রমের সাধারণ সম্পাদক মাচাং জয় প্রকাশ ত্রিপুরা, ত্রিপুরা স্টুডেন্টস্ ফোরাম, বাংলাদেশ খাগড়াছড়ি সদর শাখার সভাপতি দহেন বিকাশ ত্রিপুরা প্রমুখ।

নাইরৌং ত্রিপুরার বাবা অভিলাষ ত্রিপুরা তার ফেসবুকে বলেন, মাতৃভূমি থেকে প্রায় নয় হাজার কিলোমিটার দূরে থাকলেও সুযোগ পেলেই চেষ্টা করি নিজের শিকড়ের সাথে কল্পনাতে হলেও পরিচিত করানোর। সময় পেলেই ও প্রসঙ্গ আসলেই প্রতিকূলতার বিপরীতে ছোটবেলার নিজের জীবন সংগ্রামের দিনগুলোর কথা শেয়ার করি। স্বপ্ন দেখি, একদিন সুযোগবঞ্চিত মানুষদের পাশে দাঁড়াতে চেষ্টা করবে।

এ সময় সময় উপস্থিত ছিলেন নাইরৌং ত্রিপুরার মা রাজেশ্বরী রোয়াজা, নাইরৌং এর নানী ইরানিকা রোয়াজা সহ এলাকার গণমান্য ব্যক্তিবর্গসহ তরুন সমাজের নেতৃবৃন্দ।

নাইরৌং ত্রিপুরা’র সংক্ষিপ্ত ইতিহাস: ৪র্থ শ্রেণীর সকল বিষয়ে পুরো স্কুলে সর্বোচ্চ নাম্বার পেয়ে সামনে মাস থেকে ৫ম শ্রেণী শুরু করবে। পুরো রাজ্যের অন্যতম শীর্ষ বয়স ভিত্তিক সাঁতারু। এ বছরেই বিশটির অধিক মেডেল অর্জন। দৌড় প্রতিযোগিতায় বিভাগীয় পর্যায়ে অংশগ্রহণ; বাস্কেটবলেও রাজ্য পর্যায়ে অংশগ্রহণ। তাছাড়া রাজ্য পর্যায়ে পর্যন্ত একাধিক সংগীত উৎসবে অংশগ্রহণ।

জন্ম: ১৮ জুন ২০০৮, পিতা: অভিলাস ত্রিপুরা ও মাতা রাজেশ্বরী রোয়াজা।
বর্তমান ঠিকানা: Forde, Canberra, Australia.
স্থায়ী ঠিকানা: হাদুক পাড়া, খাগড়াপুর, খাগড়াছড়ি সদর, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা।