ড্রাইভারের স্ত্রীর সঙ্গে এক বিছানায় শোয়া, বড় বিপাকে যুবক

শোওয়ার পর থেকেই অদ্ভুত একটা গন্ধ পাচ্ছিলেন দীনেশ কুমার। কিন্তু কিছুতেই বুঝে উঠতে পারছিলেন না আদতে কী হয়েছে! কিন্তু পরের দিনই সকালেই বিছানার গদি সরাতেই চোখ কপালে উঠে গেল তাঁর।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, পেশায় চা বিক্রেতা দীনেশ কুমার গুরুগ্রামের সেক্টর ৪৬-এ জলবিহার কলোনিতে ফিরেছিলেন কাজ থেকে। গ্রামের নিজের বাড়িতে ঢুকেই রাত হয়ে যাওয়ায় ঘুমিয়ে পড়েন তিনি। কিন্তু প্রচণ্ড দুর্গন্ধ থাকায় সকালে বক্স খাটের গদিটি সরিয়ে দেন। তার পরেই চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায় তাঁর।

যে খাটটির উপর শুয়েছিলেন, গদির নীচ থেকে এক পচাগলা দেহ উদ্ধার হয়। শণাক্তকরণের পরে জানা যায় দেহটি দীনেশের গাড়ির চালক রাজেশ কুমারের স্ত্রী ববিতার দেহ।

ঘটনার পর থেকেই নিখোঁজ রয়েছে গাড়ির চালক রাজেশ। জানা গিয়েছে, বিয়ের পর থেকেই স্ত্রীর উপরে অত্যাচার চালাত সে। রাজেশ ববিতাকে খুন করে চম্পট দিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। তার খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।