সুষ্মিতা ধর্ষকের বিচার শিশু আইনে নয়, স্বাভাবিক বিচারিক প্রক্রিয়ায় হবে

0

মইনুল ইসলাম, আশাশুনি প্রতিনিধিঃ আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নের গাবতলা গ্রামের শিশু সুষ্মিতাকে ধর্ষণ ও হত্যাকারী জয় প্রকাশ ওরফে জয়দেব সরকারকে শিশু আইনের আওতায় না এনে স্বাভাবিক বিচারিক প্রক্রিয়ায় বিচার কার্যক্রম পরিচালনার দাবিতে সোচ্চার এলাকাবাসী।

শনিবার বিকাল ৩ টায় গাবতলা বাজার এলাকার ৫ শতাধিক নারী-পুরুষ একত্রিত হয়ে সাংবাদিকদের মাধ্যমে সরকারের কাছে এদাবী তুলে ধরেন। এসময় তারা সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ধর্ষক জয় প্রকাশসরকার ওরফে জয়দেব সরকার বুধহাটা বি.বি.এম কলেজিয়েট স্কুলে প্রথমে এস.এস,.সি পরীক্ষার জন্য রেজিঃ করে পরীক্ষা না দিয়ে ভারতে চলে যান।

৩ বছর পরে দেশে ফিরে বয়স কমিয়ে পুনরায় এস.এস.সি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে কৃতকার্য হয়ে বর্তমানে একই কলেজের একাদশ শ্রেণিতে পড়াশুনা করছে। সে হিসাবে তার বয়স ২০ বছরের উর্দ্ধে হওয়ার কথা।

এ সময় বক্তারা আরও বলেন, বর্তমান ডিজিটাল বাংলাদেশের যুগে ধর্ষকের সঠিক বয়স নির্ধারণ কোন কঠিন বিষয় নয়। আর কোন মা অম্বলিকা দাশের কোল খালি হওয়ার আগে ধর্ষকের সঠিক বিচারের জন্য সরকারের উচিত পরীক্ষা-নিরেক্ষার মাধ্যমে ধর্ষকের সঠিক বয়স নির্ণয় করা উচিত।

ধর্ষক জয়দেব যদি তার কৃতকর্মের বিচার না পায় তাহলে আগামীতে সুষ্মিতার মত আরও অনেক শিশুকে হয়তো ধর্ষণের পর হত্যা করে টয়লেটের সেফটি ট্রাংকের মধ্যে ফেলা হবে। হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য মহাজোটের আশাশুনি উপজেলা সভাপতি কুল্যাইউপির সদস্য উত্তম কুমার দাশের এ সময় বক্তব্য রাখেন, কুল্যা ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম পান্না, গাবতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পরিমল কুমার দাশ, উপজেলা সাবেক তরুণলীগ সভাপতি এস.এম ওমরসাকী পলাশ, সুষ্মিতার মা অম্বলিকা দাশ প্রমূখ।

এসময় উপস্থিত সকলে ধর্ষক জয় দেবের সঠিক বয়স নির্ণয় করে স্বাভাবিক ভাবে বিচারিক কাজ পরিচালনার জন্য সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.