৩২ বছর পর মন্ত্রী পেল বরিশাল বিভাগীয় সদরের সাংসদ

জাকারিয়া আলম দিপু, বরিশাল জেলা প্রতিনিধিঃ প্রায় ৩২ বছর পর বরিশাল-৫ (সদর) আসনের সাংসদ মন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন। নতুন মন্ত্রিসভায় বরিশাল-৫ আসনের সাংসদ কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুককে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

গতকাল ঘোষিত নতুন মন্ত্রিসভায় জাহিদ ফারুকসহ বরিশাল বিভাগ থেকে দুজন স্থান পেয়েছেন। অন্যজন হলেন পিরোজপুর-১ আসন থেকে নির্বাচিত সাংসদ শ ম রেজাউল করিম। এ দুজনই এবার প্রথমবার সাংসদ হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে শ ম রেজাউল করিম পূর্ণমন্ত্রী হয়েছেন। তিনি গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, প্রয়াত রাষ্ট্রপতি আবদুর রহমান বিশ্বাস বরিশাল সদর আসনে ১৯৭৯ সালের সাধারণ নির্বাচনে এই আসনের সাংসদ নির্বাচিত হন। ১৯৭৯-৮০ সময়ে তিনি রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মন্ত্রিসভায় পাটমন্ত্রী ছিলেন। ১৯৮১-৮২ সালে রাষ্ট্রপতি বিচারপতি আবদুস সাত্তারের মন্ত্রিসভায় তিনি স্বাস্থ্যমন্ত্রী ছিলেন।

এরপর ১৯৯১ সালে বাংলাদেশে সংসদীয় শাসন ব্যবস্থা প্রবর্তনের পর তিনি রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন। এরপর ১৯৮৬ সালে জাতীয় নির্বাচনে বরিশাল সদর আসন থেকে সাংসদ হন সাবেক সচিব মতিউর রহমান। তিনি ওই সময় জাতীয় পার্টি সরকারের যোগাযোগমন্ত্রী ছিলেন। ২০০১ সালে ২০–দলীয় জোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর বিএনপির মজিবর রহমান সরোয়ার জাতীয় সংসদের হুইপ হন।

আওয়ামীলীগের সূত্র জানায়, ২০০৮ সালে নবম জাতীয় নির্বাচনে বরিশাল সদর আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন জাহিদ ফারুক। ওই নির্বাচনে মজিবর রহমান সরোয়ার ১ লাখ ৫ হাজার ভোট পেয়ে জয়ী হন। আর জাহিদ ফারুক পান ৯৯ হাজার ৩৯৩ ভোট। ২০১৪ সালে জাহিদ ফারুক আর এই আসনে মনোনয়ন পাননি। একাদশ জাতীয় নির্বাচনে এবার তাঁকে মহাজোটের মনোনয়ন দেওয়া হয়। এবার তিনি ২ লাখ ১৫ হাজার ভোট পেয়ে জয়ী হন। এবার তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপির মজিবর রহমান সরোয়ার।

জাহিদ ফারুক বলেন, তাঁকে মন্ত্রিসভায় স্থান দেওয়ায় তিনি প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। তিনি চলমান উন্নয়নের ধারা বজায় রাখতে ও দক্ষিণের জনগণের জন্য কাজ করে যাবেন।